অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ভারত বিক্ষোভ নিয়ন্ত্রণের বিকল্প অস্ত্র ও পদ্ধতি খুঁজছে


ভারতে মারমুখী বিক্ষোভ ঠেকাতে এত দিন প্রথমে লাঠি ও তারপর টিয়ার গ্যাস ব্যবহার করা হত। তাতে কাজ না হলে বন্দুকের গুলি। কিন্তু তাতে প্রাণহানির সম্ভাবনা থাকে। কাশ্মিরে ২০১০ সালের বিক্ষোভ নিয়ন্ত্রণের ঘটনা থেকে শুরু করে পেলেট গান বা ছররা বন্দুকের ব্যবহার শুরু হয়।

ভাবা হয়েছিল, এতে বিক্ষোভকারীরা আহত হলেও প্রাণ যাবে না। কিন্তু সম্প্রতি হিজবুল জঙ্গী বুরহান ওয়ানির মৃত্যুর পরে রাজ্য জুড়ে যে বিক্ষোভ শুরু হয়ে যায়, তা সামলাতে গিয়ে ব্যাপক হারে ছররা বন্দুক ব্যবহার করেছে পুলিশ। কিন্তু দেখা গেল, এতে মারা গেলেন ৬ জন, ছররার আঘাতে একটি বা দুটি চোখই নষ্ট হয়েছে ৯৮ জনের। ফলে নানান মহল থেকে প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী রাজনাথ সিং জানিয়েছেন, ছররা বন্দুক ব্যবহারের এমন ফল ভাবা যায়নি। বিক্ষোভ নিয়ন্ত্রণের বিকল্প কোনও অস্ত্র ও পদ্ধতি, যা প্রাণ নষ্ট না করেই বিক্ষোভ দমন করতে পারে, তা খুঁজে পেতে তিনি একটি কমিটি গঠন করে দিয়েছেন। তারা রিপোর্ট জমা দেবে দু'মাসের মধ্যে। কলকাতা থেকে গৌতম গুপ্ত।

XS
SM
MD
LG