অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

শেষ পর্যন্ত আবহবিদদের পূর্বভাস-ই সত্যি হতে চলেছে। গত বছরের মত ২০১৫-তেও ভারতে খরা নিশ্চিত। জুন মাসে ১৬% বাড়তি বৃষ্টি হলেও জুলাইতে বৃষ্টিতে ঘাটতি হল ১৭%, অগস্টে একেবারে ২৩%। দিল্লিতে আবহাওয়া অফিসের প্রধান, শিবানন্দ পাই বলে দিয়েছেন, সেপ্টেম্বরেও কম বৃষ্টি পড়বে। কাজেই সামগ্রিক ভাবে এ বারের বর্ষায় ঘাটতি গতবারের ১২% ঘাটতি পেরিয়ে গেলেও অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না। উদ্বেগের খবর হল, কম বৃষ্টিপাতের কারণে দেশের ৯১টি প্রধান নদীবাঁধেও জলের সঞ্চয় স্বাভাবিকের চেয়ে কম। অর্থাত, চাষের সেচের জলে ঘাটতি তো বটেই, কমবে জলবিদ্যুত উতপাদনও। এই রকম খরা পরিস্থিতির জন্য আবহ বিজ্ঞানীরা দায়ী করছেন এল নিনো পরিস্থিতিকে। জানা যাচ্ছে, ২০৫০ সাল থেকে গত ৬৫ বছরে এ বছরেই দ্বিতীয় সর্বোচ্চ শক্তিশালী এই এল নিনো। অন্য দিকে, সারা দেশে যখন খরা, অসম রাজ্যে রীতিমত বন্যা। আর, পশ্শ্চিমবঙ্গে অতিরিক্ত ২৬% বৃষ্টি পড়েছে।

XS
SM
MD
LG