অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

দুই ভারতীয় জওয়ানের দেহ বিকৃত করার ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ


FILE- Indian army soldier guards near fence on the line of control near Balakot sector in Poonch, Jammu and Kashmir, India, Aug.17, 2015.

গতকাল গতকাল দুই ভারতীয় জওয়ানের দেহবিকৃত করার ঘটনাকে ‘ঘৃণ্য, অমানবিক আচরণ’, বলে আক্ষ্যা দিয়ে এর উপযুক্ত জবাব দেওয়া উচিত এবং এইঘটনাকে নিন্দা করতে হয় দ্ব্যার্থহীন ভাষায় -পাকিস্তানের ডিরেক্টর জেনারেল অব মিলিটারি অপারেনশস (ডিজিএমও) কে হটলাইনে একথাই জানিয়ে দিয়েছেন ভারতের ডিজিএমও। সরকারী ভাবেই এক বিবৃতিতে ভারতীয় সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, গতকাল সোমবার জম্মু ও কাশ্মীরের পুঞ্চের কৃষ্ণঘাটি সেক্টরে দুই ভারতীয় জওয়ানের হত্যাকাণ্ড, অঙ্গহানির ঘটনায় গভীর উদ্বেগ জানিয়েছেন ডিজিএমও। তিনি পাকিস্তানকে বলেছেন, এমন ঘৃণ্য আচরণ কোনও সভ্য সমাজে চলতে পারে না, কোনও বাছবিচার না করে এর নিন্দা করে যোগ্য জবাব দেওয়া উচিত।গতকাল যেখানে ভারতীয় জওয়ানদের মাথা কেটে নেওয়া হয়, সেখানে পাক সেনা পোস্ট থেকে গোলাগুলি চালিয়ে পূর্ণ মদত দেওয়া হয়েছে বলেও পাক কর্তাকে জানিয়েছেন ডিজিএমও।নিয়ন্ত্রণ রেখার খুব কাছেই পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীর ভূখণ্ডে পাক সেনার বর্ডার অ্যাকশন টিম (ব্যাট)-এর ট্রেনিং ক্যাম্প চলার ব্যাপারেও ভারতের আপত্তি ও উদ্বেগের কথাজানিয়ে দেন তিনি।প্রসঙ্গত বলা যেতে পারে ভারতীয় সেনাবাহিনী গতকালই দুই জওয়ানের মুণ্ডচ্ছেদকে ‘জঘন্য কাজ’ তকমা দিয়ে যথাযথ জবাব দেওয়ার শপথ ঘোষণা করেছে। প্রতিরক্ষামন্ত্রী অরুণ জেটলিও গতকালই জানিয়ে দেন, পাক সেনা তাদের অমানবিক আচরণের যোগ্য জবাব পাবে, নিহত জওয়ানদের বলিদান ব্যর্থ হবে না। শান্তির সময় তো দূরের কথা, যুদ্ধের মধ্যেও এমনটা ঘটে না। নৃশংসতার একেবারে চরম পর্যায়ে গেলেই নিহত সেনার অঙ্গচ্ছেদ করা সম্ভব। ‘ঘৃণ্য, অমানবিক আচরণ’, বলে আক্ষ্যা দিয়ে এর উপযুক্ত জবাব দেওয়া উচিত এবং এইঘটনাকে নিন্দা করতে হয় দ্ব্যার্থহীন ভাষায় -পাকিস্তানের ডিরেক্টর জেনারেল অব মিলিটারি অপারেনশস (ডিজিএমও) কে হটলাইনে একথাই জানিয়ে দিয়েছেন ভারতের ডিজিএমও। সরকারী ভাবেই এক বিবৃতিতে ভারতীয় সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, গতকালসোমবার জম্মু ও কাশ্মীরের পুঞ্চের কৃষ্ণঘাটি সেক্টরে দুই ভারতীয় জওয়ানের হত্যাকাণ্ড, অঙ্গহানির ঘটনায় গভীর উদ্বেগ জানিয়েছেন ডিজিএমও। তিনি পাকিস্তানকে বলেছেন, এমন ঘৃণ্য আচরণ কোনও সভ্য সমাজে চলতে পারে না, কোনও বাছবিচার না করে এর নিন্দা করে যোগ্য জবাব দেওয়া উচিত।গতকাল যেখানে ভারতীয় জওয়ানদের মাথা কেটে নেওয়া হয়, সেখানে পাক সেনা পোস্ট থেকে গোলাগুলি চালিয়ে পূর্ণ মদত দেওয়া হয়েছে বলেও পাক কর্তাকে জানিয়েছেন ডিজিএমও।নিয়ন্ত্রণ রেখার খুব কাছেই পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীর ভূখণ্ডে পাক সেনার বর্ডার অ্যাকশন টিম (ব্যাট)-এর ট্রেনিং ক্যাম্প চলার ব্যাপারেও ভারতের আপত্তি ও উদ্বেগের কথাজানিয়ে দেন তিনি।প্রসঙ্গত বলা যেতে পারে ভারতীয় সেনাবাহিনী গতকালই দুই জওয়ানের মুণ্ডচ্ছেদকে ‘জঘন্য কাজ’ তকমা দিয়ে যথাযথ জবাব দেওয়ার শপথ ঘোষণা করেছে। প্রতিরক্ষামন্ত্রী অরুণ জেটলিও গতকালই জানিয়ে দেন, পাক সেনা তাদের অমানবিক আচরণের যোগ্য জবাব পাবে, নিহত জওয়ানদের বলিদান ব্যর্থ হবে না। শান্তির সময় তো দূরের কথা, যুদ্ধের মধ্যেও এমনটা ঘটে না। নৃশংসতার একেবারে চরম পর্যায়ে গেলেই নিহত সেনার অঙ্গচ্ছেদ করা সম্ভব।

কলকাতা থেকে বিস্তারিত জানিয়েছেন পরমাশিষ ঘোষ রায়।

XS
SM
MD
LG