অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

২৯ জনকে নিয়ে নিখোঁজ ভারতীয় বায়ুসেনার বিমান


আজ ২৯ জনকে নিয়ে নিখোঁজ হল ভারতীয় বায়ুসেনার বিমান। যাত্রীদের মধ্যে আছেন ছয জন ক্রু। আজ ভারতীয় সময় সকাল সাড়ে আটটায় চেন্নাইয়ের কাছে তামবারাম বায়ু সেনা ঘাঁটি থেকে বিমানটি পোর্টব্লেয়ার রওনা দেয়। শেষ সেটির সঙ্গে বেতার সংযোগ হয়েছিল রওনা হওয়ার ষোলো মিনিট বাদে। বিমানটির পোর্ট ব্লেয়ারে নামার কথা ছিল সকাল এগারোটা কুড়ি মিনিটে। কিন্তু তারপর দীর্ঘক্ষণ কেটে গেলেও এখনও সেটির খোঁজ মেলেনি। ফলে উদ্বেগ, উৎকণ্ঠা ছড়িয়ে পড়ে বায়ূ সেনার মধ্যে তারপরই গোটা দেশে।

বিমানটিতে যে পরিমাণ জ্বালানি ছিল তাতে নতুন করে জ্বালানি না ভরে চার ঘণ্টা উড়তে সক্ষম সেটি।বিমানটি রুটিন ক্যুরিয়র সার্ভিসে বেরিয়ে ছিল বলে জানিয়েছেন বায়ুসেনার মুখপাত্র উইং কমান্ডার অনুপম ব্যানার্জি। প্রতিরক্ষা সূত্রের খবর, বিমানটির সঙ্গে যখন শেষ যোগাযোগ হয়, তখন সেটি তেইশ হাজার ফুট ওপর দিয়ে উড়ছিল।

বায়ুসেনার পরিবহণ বিমানটিতে ছিলেন দুজন পাইলট, একজন নেভিগেটর ছাড়াও নৌ ও সেনাবাহিনীর লোকজন। বিমানটিতে জরুরি বাতি রয়েছে, যা সেটির গতিবিধির হদিশ দিতে সক্ষম। তবে নিখোঁজ বিমানটির সন্ধানে বঙ্গোপসাগরে নজরদারি বিমান পাঠিয়েছে নৌবাহিনী। নামানো হয়েছে একটি সি-একত্রিশ বিমানের পাশাপাশি দুটি এএন বত্রিশ বিমান। নৌবাহিনী নামিয়েছে দুটি পি আট আই নৌ নজরদারি ও সাবমেরিন বিধ্বংসী যুদ্ধবিমান। সেগুলিকে পাঠানো হয়েছে পোর্ট ব্লেয়ার থেকে। পাঠানো হয়েছে দুটি ডর্নিয়ার এয়ারক্র্যাফটও।

নৌ বাহিনীর মুখপাত্র ক্যাপ্টেন ডি কে শর্মা বলেছেন, তাঁদের বাহিনী পূর্ণ শক্তি নিয়ে বঙ্গোপসাগরে তল্লাসি ও উদ্ধার অভিযানে নেমেছে। যদি বিমানটি দুর্ঘটনার কবলে সেখানে ভেঙে পড়ে থাকে, সেই আশঙ্কা মাথায় রেখে বঙ্গোপসাগর তোলপাড় করে খোঁজ চলছে। কলকাতা থেকে পরমাশিষ ঘোষ রায়।


XS
SM
MD
LG