অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

এ বছরের গ্রীষ্মের ধরণ বদল ভাবাচ্ছে অাবহাওয়া বিজ্ঞানীদের- গৌতম গুপ্তের রিপোর্ট


এ বছরের গ্রীষ্মের ধরণ বদল ভাবাচ্ছে অাবহাওয়া বিজ্ঞানীদের। ইন্ডিয়ান মেটিওরলিজিক্যাল ডিপার্টমেন্ট বা আইএমডি বুঝতে চায় ঠিক কি কি কারণে এ বারের গ্রীষ্ম এতটা অন্য রকম? বদলের ধরণটাই বা কেমন। মার্চ-এপ্রিল-মে মাসের মধ্যে সচরাচর এক ডজন কালবৈশাখী হয়। এ বছর হয়েছে অর্ধেক সংখ্যক মাত্র। এপ্রিলের প্রথম থেকেই তাপমাত্রা তুঙ্গে চড়েছিল।। সর্বোচ্চ ৪১.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা হল ১১ এপ্রিল। এ ছাড়াও এপ্রিলে ৪০ ডিগ্রির বেশি তাপ ছিল সাত দিন। টানা তাপপ্রবাহ চলেছে ছয় দিন ধরে। বরং দেখা যাচ্ছে, মে মাসটা-ই এপ্রিলের চেয়ে ঠাণ্ডা যাচ্ছে। এই বদলটাই আইএমডি-র গবেষণার বিষয় হয়ে ওঠবার পক্ষে যথেষ্টই গুরুতর। সংস্থার এক শীর্ষ কর্তা, দেবেন্দ্র প্রধান বলেছেন, তাঁরা অবশ্য বছর পাঁচেক ধরেই একটা পরিবর্তনের আভাস পাচ্ছিলেন। কিন্তু সেটা প্রকট হয়ে দেখা দিল ২০১৬-র গ্রীষ্মে।গৌতম গুপ্তের রিপোর্ট:

XS
SM
MD
LG