অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে আগরতলা রণক্ষেত্র


ভারতের উত্তর পূর্বাঞ্চলের রাজ্য ত্রিপুরায় তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে গতকাল সোমবার রাত থেকে রণক্ষেত্র হয়ে ওঠে ত্রিপুরার রাজধানী আগরতলা।

সংঘর্ষে কমপক্ষে এগারো জন পুলিশ কর্মী, দুই দলের দুই নেতা সহ আরও কয়েকজন কর্মী এবং চারজন সাংবাদিক জখম হয়েছেন।

পশ্চিম ত্রিপুরা জেলার পুলিশ প্রধান অভিজিত্ সপ্তর্ষি জানিয়েছেন, আগরতলায় বিজেপি ও তৃণমূল কর্মীদের সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে পাঁচ অফিসারসহ এগারো জন পুলিশ কর্মী জখম হয়েছেন। বিজেপি রাজ্য সভাপতি সুবল ভৌমিক ও তৃণমূল নেতা পান্না দেব সহ দুই দলের কমপক্ষে পাঁচজন কর্মী আহত হয়েছেন। সপ্তর্ষি জানিয়েছেন, তৃণমূল নেতা সুদীপ রায় বর্মনের দাদা বিজেপির মন্ডল সভাপতি জয়ন্ত দে-কে মারধর করেছেন বলে অভিযোগ ওঠে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করেই সংঘর্ষ বেঁধে যায় দুই দলের কর্মীদের মধ্যে।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে ছুটে যায় প্রচুর পরিমাণে পুলিশ ও ত্রিপুরা রাষ্ট্রীয় রাইফেলসের জওয়ানরা। নেতৃত্বে ছিলেন সপ্তর্ষি ও ডিআইজি উত্তম মজুমদার। দুই পক্ষকে প্রায় তিন ঘন্টা চেষ্টার পর নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ।

সংঘর্ষকারীদের ওপর লাঠিচার্জের সময় চারজন সাংবাদিকও জখম হন। আহতদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ত্রিপুরা সাংবাদিক সংগঠনের সভাপতি জানিয়েছেন, প্রবীণ সাংবাদিকরা পদস্থ পুলিশ আধিকারিকদের সঙ্গে দেখা করে সাংবাদিক নিগ্রহে অভিযুক্ত রাজনৈতিককর্মীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন বলে খবর। কলকাতা থেকে পরমাশিষ ঘোষ রায়।

XS
SM
MD
LG