অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

প্যারিস থেকে হাল নাগাদ পরিস্থিতি বিশ্লেষণ করলেন জ. ই মামুন


গত সপ্তায় প্যারিসে সন্ত্রাসী আক্রমণের পর গোটা ইউরোপ জুড়ে বাড়তি সতর্ক ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে এবং আজ থেকে ইউরোপীয় ইউনিয়ন তার সীমান্তকে আরও সুরক্ষিত করছে । প্যারিস পরিস্থিতি স্বচক্ষে দেখার জন্য বাংলাদেশের এক মাত্র সাংবাদিক জ. ই মামুন সেখানে গেছেন। এ টি এন বাংলার প্রধান নির্বাহী সম্পাদক জ.ই মামুন প্যারিস থেকে সেখানকার সামগ্রিক পরিস্থিতি ও পরিবেশ নিয়ে কথা বলেন ওয়াশিংটনে ভয়েস অফ আমেরিকার আনিস আহমেদের সঙ্গে ।

জ.ই মামুন বলেন যে প্যারিসের অবস্থা আগের চাইতে এখন অনেক স্বাভাবিক হয় এসছে বিশেষত বিশেষত এই সপ্তায় সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে অভিযানে আটজন আটক এবং সন্ত্রাসের মূল হোতার নিহত হওয়ার ঘটনায় জনমনে এক ধরণের স্বস্তি রয়েছে । পাশাপাশি অবশ্য পলাতক সন্ত্রাসী সম্পর্কে লোকজনের মধ্যে উদ্বেগ ও বিরাজ করছে। প্যারিসে বাংলাদেশীদের প্রসঙ্গে তিনি বলেন এখানে অধিকাংশ্‌ই বাংলাদেশীই যেহেতু মুসলমান তাদের মনে একটা আশংকা কাজ করছিল যে মুসলিম সন্ত্রাসীদের এই হামলা কোন রকম বিরুপ প্রতিক্রয়া সৃষ্টি করবে কীনা। তবে আনন্দের ব্যাপার বাংলাদেশীরা ফরাসিদের কোন রকম বিরুপ প্রতিক্রয়ার শিকার হননি্

ফ্রান্সের অবাধ সমাজে জরুরি অবস্থা জারির প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে তিনি বলেন যে এমনিতে প্রাত্যহিক জীবনে এর কোন প্রভাব লক্ষ্য করা যায় না তবে সভাসমিতিতে নিষেধাজ্ঞা এবং বাড়তি আইন শৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েনে জনসাধারণ বরঞ্চ আরও নিরাপদ বোধ করছেন। তবে অভিবাসন ইচ্ছুক মানুষের যে ঢল নামছে ইউরোপে সে ব্যাপারে জ.ই.মামুন বলেন যে নিরাপত্তা ব্যবস্থার কড়াকড়ির কারণে শরনার্থীদের অভিবাসন প্রক্রিয়ায় এর নিশ্চিত প্রভাব পড়বে। যদিও সব অভিবাসীকে ঢালাও ভাবে সন্ত্রাসী হিসেবে বিবেচনা করা অনুচিৎ হবে এবং তেমনটি কেউ করছেন ও না । এমন কী ঐ অঞ্চলে সন্ত্রাসীদের সহিংসতার শিকার হয়ে তাঁরা অনেকেই এসছেন ইউরোপে নিরাপদ জীবন যাপনের সন্ধানে । তবুও জ.ই. মামুন মনে করেন অভিবাসনের ব্যাপারে যাচাই প্রক্রিয়ায় এখন আরও কড়াকড়া আরোপ করা হবে।

২০শে নভেম্বর বিশ্ব শিশু দিবস উপলক্ষে জাতিসংঘের মহাসচিব শিশুদের সহিংসতা থেকে মুক্ত রাখার যে আবেদন জানিয়েছেন সে প্রসঙ্গে জ.ই মামুন বলেন শিশুরা যে কেবল সন্ত্রাসের শিকার হচ্ছে তাই নয় , কোথাও কোথাও তাদেরকে সন্ত্রাসবাদীরা ব্যবহার ও করছে। প্রসঙ্গত তিনি বলেন প্যারিসে এই উগ্রবাদী হামলার কারণে শিশুরা এখন ও সন্ত্রস্ত বোধ করছে। তিনি বাংলাদেশ প্রসঙ্গ বলেন যে সেখানেও শিশুরা নির্যাতিত হচ্ছে । এই অবস্থার পরিবর্তনের জন্য সরকার ও সংশ্লিষ্ট প্রশাসনগুলোকে আরও সক্রিয় হতে হবে।

XS
SM
MD
LG