অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

নেওয়াজ শরিফের টিকে থাকার জন্য সেনা সমর্থন খুব জরুরী : মাসকাওয়াথ আহসান

  • আনিস অহমেদ

পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে এগারোই মে । সেখানে সরকার গঠনে বিলম্বের কারণ, পাকিস্তানি তালিবানের সঙ্গে সম্ভাব্য প্রধানমন্ত্রী নেওয়াজ শরীফের আলোচনার সম্ভাবনা , সেনাবাহিনীর সঙ্গে এ প্রসঙ্গে ঐকমত্যের প্রয়োজনীয়তা এবং কাবুল সরকারের দিল্লির কাছ থেকে সামরিক সাহায্য নেয়ার ব্যাপারে পাকিস্তানের সম্ভাব্য প্রতিক্রিয়া এ সব বিষয় নিয়ে করাচিতে রাজনৈতিক ভাষ্যকার ও অন লাইন সাংবাদিক মাশকাওয়াথ আহসান কথা বলেছেন , ভয়েস অফ আমেরিকার বাংলা বিভাগের সঙ্গে।
তিনি বলেন যে পাকিস্তানে কোন কোন ভোটকেন্দ্রে কারচুপির অভিযোগ মহিলা ভোটারদের ভোটদানে বাধা প্রয়োগ এবং রাজনৈতিক দলগুলোর “ ক্যাডারদের” ভোটদাতাদের বাধা দেওয়ার কারণে বেশ কিছু পোলিং স্টেশনে ভোট গ্রহণ চলছে। সে কারণেই পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশন এ ব্যাপারে সরকারী কোন বিজ্ঞপ্তি দিতে পারছে না। তবে সাংবিধানিক বাধ্য বাধকতার কারণে নির্বাচন অনুষ্ঠানের ২১ দিনের মধ্যেই বিজয়ীদের শপথ নিতে হবে।
তিনি বলেন যে পাকিস্তানি তালিবানের সঙ্গে আলোচনার যে কথা নেওয়াজ শরিফ বলছেন সে জন্যে সেনাবাহিনী প্রধান ও নেওয়াজ শরিফের মধ্যে একটা সহমতের প্রয়োজন রয়েছে। পাকিস্তানি সেনাবাহিনী তাদের বহু সৈন্যকে হারিয়েছে এই পাকিস্তানি তালিবানের হাতে। সেনাবাহিনীর অমতে কোন কিছু করলে নেওয়াজ শরিফ টিকে থাকবেন না।
আফগান প্রেসিডেন্ট হামিদ কারজাইয়ের ভারত সফর এবং ভারত থেকে তার অস্ত্র কেনা প্রসঙ্গে বলেন যে ভারত ও আফগানিস্তানের মধ্যে সখ্যতা নিয়ে পাকিস্তানে এক ধরণের উদ্বেগ-উৎকন্ঠা কাজ করে কিন্তু এখন সময় এসছে এটা বোঝার যে ভারত শুধু নয় , পাকিস্তানের ও উচিৎ আফগানিস্তানকে সহায়তা প্রদান।

XS
SM
MD
LG