অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

সাংবাদিকদের বিরুদ্ধের রণির আচরণ সমর্থন করা যায় না : আবেদ খান

  • আনিস আহমেদ

সম্প্রতি বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সদস্য গোলাম মওলা রণির সেখানকার বেসরকারী টেলিভিশনের সাংবাদিকদের যে মারধর করেছেন বলে অভিযোগ এসছে এবং রনিও ও সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে তাকে অনুসরণ করার যে অভিযোগ করছেন , তারই প্রেক্ষাপটে , বাংলাদেশের প্রবীণ সাংবাদিক আবেদ খান ভয়েস অফ আমেরিকার বাংলা বিভাগকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন যে সাংবাদিক তার অনুসন্ধানী প্রতিবেদনের জন্যে অবশ্যই যে কোন জায়গায় যাবেন এটা স্বাভাবিক। তথ্য অধিকার আইন প্রসঙ্গে আবেদ খান বলেন যে এই আইনেই সেই অধিকার সাংবাদিকরা পেয়েছেন। তিনি আরও বলেন যে অনুসন্ধানী রিপোর্টের জন্যে কেউ হয়ত তথ্য প্রদানে অস্বীকৃতি জানাতে পারেন কিন্তু তিনি কোন অবস্থাতেই এখানে শক্তি প্রয়োগ করতে পারেন না। অথচ যে ভিডিও চিত্র দেখানো হয়েছে তাতে পরিস্কার ভাবেই যে তিনি “ ফিজিকালী অ্যাসল্ট” করেছেন। তিনি বলেন যে সাংবাদিক নিগৃহত করাটা অত্যন্ত অন্যায় এবং ক্ষুব্ধ করার মতো বিষয়্।

আবেদ খান বলেন যে কিছু কিছু ব্যতিক্রম ছাড়া ঐতিহাসিক ভাবেই সাংবাদিক ও রাজনীতিকদের মধ্যে সম্পর্ক থেকেছে অত্যন্ত ভাল এবং ঘনিষ্ঠ। বাস্তব বিষয়টি হচ্ছে যে সংবাদমাধ্যমের প্রতি রাজনীতিকদের নির্ভরতা এবং রাজনীতিকদের সংসবাদ সৃষ্টির ব্যাপারে , সংবাদ মাধ্যমের কর্মিদের যে ঔৎসক্য , দুটোই পরস্পরের সঙ্গে সম্পর্কিত। তিনি আরও বলেন যে গোলাম মাওলা রণি , তাঁর অনলাইন পত্রিকায় সালমান এফ রহমানের বিরুদ্ধে লেখার কারণে সাংবাদিকরা অনুসন্ধানী রিপোর্ট করতে উদ্যোগি হয়েছিলেন সে কথা ঠিক নয় এবং তাঁরা এমন কোন রিপোর্ট ও করেননি যার জন্যে গোলাম মাওলা রণির ক্রুদ্ধ হওয়ার কথা। এখানে মালিকের নির্দেশে কিছু ঘটেছে তেমনটি বলার কোন যুক্তি পাওয়া যাচ্ছে না।


XS
SM
MD
LG