অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

যুদ্ধাপরাধীদের বিচারে বাংলাদেশ সরকারের দক্ষতা প্রশংসনীয় : নাসির উদ্দিন ইউসুফ


২৫শে মার্চ বাংলাদেশে গণহত্যা শুরুর দিন। মধ্যরাতের অল্প আগেই তদনীন্তন পাকিস্তান বাহিনী তাদের অপারেশন সার্চ লাইট নামের আক্রমণ-অভিযান শুরু করে। প্রায় ন মাস ধরে তারা চালিয়েছিল এই নৃশংস হত্যাকান্ড। এই হত্যাকান্ডের নীরব স্বাক্ষী নয় , এর বিরুদ্ধে সক্রিয় যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন , নাসিরুদ্দিন ইউসুফ ।

তাই নাসিরউদ্দীন ইউসুফ যে কেবল মাত্র একজন মঞ্চনাটক ও চলচ্চিত্র পরিচালক তাই-ই নয় , ঢাকা থিয়েটার ও বাংলাদেশ গ্রাম থিয়েটারের প্রতিষ্ঠাতা পুরুষ নাসিরুদ্দিন ইউসুফ একজন বীর মুক্তিযোদ্ধাও। ভয়েস অফ আমেরিকার সঙ্গে একান্ত সাক্ষাৎকারে নাসির উদ্দিন ইউসুফ সেই যুদ্ধের দিনগুলোর কথা তুলে ধরেন , বিশেষ করে তুলে ধরেন ২৫শে মার্চের সেই হত্যাযজ্ঞের কথা এবং পরবর্তীতে স্বাধীনতা ঘোষণার প্রসঙ্গটিও ।

তিনি মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সমুন্নত রাখার ব্যাপারে বর্তমান সরকার এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানান , বিশেষত যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী হাসিনা যে দক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন সেটা উল্লেখ করার মতো। আর দ্বিতীয়ত তিনি উন্নয়নের একটি পরিকল্পনা হাতে নিয়েছেন যেটি মুক্তিযুদ্ধের মূল চেতনা। ধর্মনিরপেক্ষতা ও গণতন্ত্র মুক্তিযুদ্ধের চেতনা মূল শর্ত ছিল। সেই সঙ্গে অর্থনৈতিক ভাবে সমৃদ্ধ একটি অধুনিক বাংলাদেশ গঠনেও বাঙালি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ছিল। তবে তিনি বলেন যে ধর্মনিরপেক্ষতা এবং গণতন্ত্র নিয়ে ব্যাপক সংকট এখন ও রয়ে গেছে বাংলাদেশে।

সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন আহসানুল হক

XS
SM
MD
LG