অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

শাহরিয়ার কবিরের The Ultimate Jihad ও বিবিধ প্রসঙ্গ


ওয়াশিংটনে বাংলাদেশ দূতাবাসে বক্তব্য রাখছেন শাহরিয়ার কবির

ওয়াশিংটনে বাংলাদেশ দূতাবাসে বক্তব্য রাখছেন শাহরিয়ার কবির

বাংলাদেশের বিশিষ্ট লেখক-সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মি শাহরিয়ার কবির জিহাদের উপর নির্মিত তাঁর তিনটি প্রামাণ্য চিত্রের সর্বশেষ ছবি The Ultimate Jihad , আল কায়দাসহ বিশ্বের বিভিন্ন জঙ্গি মৌলবাদী গোষ্ঠির চক্রজালের ওপর আলোকপাত করেছেন এই চলচ্চিত্রে তিনি জঙ্গিবাদ নির্মূলে আন্তর্জাতিক ঐক্যমতের ওপর জোর দেন তিনি বলেন যে বিশ্বব্যাপী আল ক্বায়দা, মুসলিম ব্রাদারহুড এবং জামায়াতে ইসলামির স্বরূপ উন্মোচন করার পাশাপাশি , তাদের দর্শন , তাদের রাজনীতি, অর্থনীতি , সংস্কৃতি পুরো বিষয় তুলে ধরাটা তাঁর লক্ষ্য ছিল এরই সঙ্গে তারা যে ভাবে ইসলামকে বিকৃত করছে সেদিকটি ও তুলে ধরা। ইসলাম যে এ ধরণের উন্মাদনা নয় , এ ধরণের সন্ত্রাস নয় সে বিষয়টা্ও তাঁরা এনেছেন , ইসলামি চিন্তবিদদের বক্তব্যে এবং ঐ ছবিতে তিনি সুফি ইসলামের বিষয়টিকেও তুলে ধরেছেন যা কীনা মানবতার কথা বলে , শান্তির কথা বলে সম্প্রীতির কথা বলে। তিনি বিভিন্ন বিশ্লেষকের বক্তব্য তুলে ধরেছেন তার এই প্রামাণ্য চলচ্চিত্রে তিনি জোর দিয়েই বলেন যে এই সন্ত্রাসকে সব দেশের সম্মিলিত ভাবে মোকাবিলা করতে হবে।

জামায়াত ইসলামের ব্যাপারে এই সাক্ষাৎকারে শাহরিয়ার কবির বলেন যে জামায়াত যে একটি জঙ্গি সংগঠন এবং জোর করেই যে তারা ক্ষমতা দখল করতে চায় সে কথাটি জামায়াতে ইসলামির প্রতিষ্ঠাতা আবুল আলা মওদুদি বলেছেন এ প্রসঙ্গে তিনি মওদুদির ছেলের উক্তি ও তুলে ধরেন তিনি বলছেন যে বাংলাদেশে জামায়াতে ইসলামি, নিষিদ্ধ হওয়া উচিত তিনি আরও বলেন যে জামায়াতে ইসলামির আন্ডার গ্রাউন্ড দল আছে সুতরাং জামায়াত নিষিদ্ধ হলে তারা আন্ডারগ্রাউন্ডে গিয়ে তান্ডব সৃষ্টি করবে এই যুক্তি ঠিক নয়। বরঞ্চ জামায়াত তার বৈধতা হারালে তারা সেই সব সুযোগ সুবিধে থেকে বঞ্চিত হবে যার সুযোগে তারা সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালিয়ে থাকে।


XS
SM
MD
LG