অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ফের আইএস-এর অস্তিত্ব উড়িয়ে দিলেন


স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল ফের আইএস-এর অস্তিত্ব নাকচ করে দিয়েছেন। বলেছেন, এটি একটি দেশী ও আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রের অংশ। বাংলাদেশে আইএস নেই। ঘাঁটি থাকার কোন সুযোগও নেই।


মধ্যপ্রাচ্যের জঙ্গি গোষ্ঠী আইএস-এর নিজস্ব ম্যাগাজিন ‘দাবিক’-এ আইএস-এর বাংলাদেশ প্রধান শেখ আবু ইব্রাহিম আল হানিফ-এর এক সাক্ষাতকার প্রকাশিত হয়েছে। এই প্রথমবারের মতো আইএস তার বাংলার যোদ্ধা দলের প্রধানের পরিচয় প্রকাশ করলো। সাক্ষাতকারে আবু হানিফ জানিয়েছেন, বাংলাদেশের মধ্যে শক্ত ঘাঁটি তৈরি করে এখান থেকে তারা ভারত ও মিয়ানমারে বড় ধরনের হামলা পরিচালনা করতে চায়। সাক্ষাতকারে তিনি স্বীকার করেন, আইএস-এর অনুসারীরা ধর্মনিরপেক্ষ লেখক এবং সংখ্যালঘু সম্প্রদায়কে লক্ষ্য করে হত্যাকা- চালিয়েছে। নাস্তিক এবং নবীকে নিয়ে উপহাসকারী এবং মুরতাদদের গলা কাটার জন্য তাদের যোদ্ধারা চাকু ধাঁর দিচ্ছে বলে ওই সাক্ষাতকারে আবু হানিফ উল্লেখ করেছেন।

দীর্ঘ এই সাক্ষাতকারে বাংলাদেশের কৌশলগত অবস্থানের ব্যাখ্যা করেছেন। বলেছেন, ভবিষ্যতে হিন্দু ভারত এবং বৌদ্ধ বার্মার বিরুদ্ধে জিহাদ পরিচালনা করা হবে। মুসলিম হত্যার প্রতিশোধ এবং এই অঞ্চলের আইএস-এর খেলাফত প্রতিষ্ঠাই এই জিহাদের অন্যতম উদ্দেশ্য। আইএস-এর আঞ্চলিক প্রধান বলেন, বাংলাকে শক্ত ঘাঁটি হিসেবে ব্যবহার করে সেখান থেকে এবং পাকিস্তান থেকে একই সঙ্গে ভারতের মধ্যে গেরিলা যুদ্ধ চালানো সম্ভব হবে। ভারত ও মিয়ানমারে জিহাদ শুরু করতে কেন বিলম্ব হচ্ছে, এর একটি ব্যাখ্যাও দিয়েছেন শেখ আবু ইব্রাহিম আল হানিফ। তার ভাষায়, কাছের শত্রু বাংলাদেশ সরকার এবং ভুয়া মুসলমানদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের কারণেই দূরের শত্রুদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ শুরু করা যাচ্ছে না। বাংলাদেশের জামায়াতে ইসলামী প্রসঙ্গে আবু হানিফ বলেন, দলটির নেতারা শুধু মিষ্টি কথা বলে তাদের নিরীহ অনুসারীদের ধোঁকা দিচ্ছে।
ওদিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানিয়েছেন, বাংলাদেশে ঘাঁটি বানিয়ে অন্য কোন দেশে আক্রমণের সুযোগ কাউকে দেয়া হবে না।




XS
SM
MD
LG