অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ISI-এর জাল বিস্তার হ‘চ্ছে পশ্চিম বঙ্গে


পূর্ব ভারতের সেনাঘাঁটিই মূল টার্গেট পাকিস্তানি গুপ্তচর সংস্থা আই এস আই এর।তাই এই ঘাঁটি গুলির উপর গোপনে নজর দারি ও সেখান থেকে সামরিক তথ্য সংগ্রহের জন্য পশ্চিম বঙ্গের বাসিন্দাদের নিয়োগ করে প্রচুর মডিউল তৈরী করেছে আই এস আই ।গতকাল কলকাতা থেকে গ্রেপ্তার হওয়া তিন পাকগুপ্ত চর সংস্থার এজেন্ট কে আজ জেরা করে এমনই একাধিক চাঞ্চল্যকর তথ্য জানতে পেরেছে কলকাতা পুলিশের ষ্পেশাল টাস্ক ফোর্স। যেহেতু দেশ বিরোধী এবং সামরিক গোয়েন্দা তথ্য সংক্রান্ত বিষয় তাই গোটা তদন্ত প্রক্রিয়া হাতে নিতে চাইছে দেশের কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা সংস্থা এন আই এ। প্রসংগত বলা যেতে পারে এমাসেই কলকাতা থেকে ধরা পড়েছে আই এস আই দুই মডিউল....যাদের নাম আখতার খান ও জাফর খান...এদের সূত্র ধরেই গতকালই কলকাতার গার্ডেন রিচ শিপবিল্ডার্স এলাকা থেকে একই পরিবারের তিন সদস্য কে গ্রেপ্তার করে কলকাতা পুলিশের ষ্পেশাল টাস্ক ফোর্স। ধৃত তিন ব্যাক্তির নাম ইরশাদ হায়দার আনসারি, আসফাক হায়দার আনসারি, মহম্মদ জাহাঙ্গির....এদের সংগে যুক্ত থাকার অভিযোগে উত্তর প্রদেশের মিরাট থেকে ইজাজ নামের এক ব্যাক্তি কে গ্রেপ্তার করেছে উত্তর প্রদেশ পুলিশ।ধৃতদের কাছ থেকে মিলেছে বহু নকশা ও তথ্য।গোয়েন্দা পুলিশ নিশ্চিত যে কলকাতা ও রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় চর মডিউল তৈরী করছে পাকিস্তান। এদের মূলকাজ সেনাবাহিনী ও বায়ূসেনা ও নৌসেনা সম্পর্কিত বিভিন্ন তথ্য জোগাড় করা।গোয়েন্দা দের সন্দেহ যে কোনো সময়ই রাজ্যের নানাপ্রান্তের সেনা ঘাঁটিতে আইএস আই ভবিষ্যতে আই এস বা অন্যকোনো জঙ্গি সংগঠনকে দিয়ে হামলা চালাতে পারে।পরমাশিস ঘোষরায়ের রিপোর্ট:

XS
SM
MD
LG