অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরী রাশিয়া-তুরস্ক-সৌদি আরব এবং জর্ডানের নেতাদের সঙ্গে সিরিয়া পরিস্থিতির রাজনৈতিক নিস্পত্তি নিয়ে আলোচনা করবেন।


যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরী বলেছেন-পরে, এ সপ্তাহেই তিনি রাশিয়া-তুরস্ক-সৌদি আরব এবং জর্ডানের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন,সিরিয়া পরিস্থিতির রাজনৈতিক নিস্পত্তির প্রক্রিয়া আবার শুরু করার বিকল্প কি কি হতে পারে তা নিয়ে আলোচনার জন্যে।

কেরী স্পেইনে সফরকালে বলেছেন- সিরিয়া যাতে একেবারে ধংস না হয়ে যায় তা পরিহারই যুক্তরাষ্ট্রের কাম্য এবং বিকল্প পন্থা কি কি রয়েছে-কিভাবে তা নিয়ে অগ্রসর হওয়া যায়,সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলোর তা অনুধাবনের প্রত্যাশা নিয়েই কেবল তিনি আলোচনায় বসবেন।বলেন- রাশিয়ানরা – ইরানীরা সহ সক্কলেই বলেছে- এর সামরিক কোনো সমাধান নেই-অতএব এর রাজনৈতিক নিস্পত্তি একটা খুঁজে আমাদের বের করতেই হবে। বলেন-মানব সমাজের জন্যে এ এক মহা বিপর্যয়কর পরিস্থিতি- ঐ গোটা অঞ্চলটির দেশগুলোর অখন্ডতার জন্যেই তা এক ভয়াবহ পরিস্থিতি খাড়া করছে।

সিরিয়ার সৈন্যদের মদত জোগাতে তিন সপ্তাহ যাবত রাশিয়া বিমান আক্রমন চালিয়ে যাচ্ছে-এই যে তার অভিযানের অংশ, - যুক্তরাষ্ট্র এবং অন্যান্যেরা তার কড়া সমালোচনা করছে- বলছে, রূশ সেনারা তাক করছে মূলত: বিদ্রোহি লড়াকুদেরকে- ইসালামি স্টেইট জঙ্গিদের নয়।

কেরী বলেন- রাশিয়া যদি সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদকে উৎসাহিত করতেই ওখানে গিয়ে থাকে তো তাহলে, পরিস্থিতি আরো অধিক সংখ্যায় জঙ্গিদেরকে লড়াইয়ে ভেড়াবে সন্দেহ নেই।

আর, রাশিয়া যদি সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদকে একটা রাজনৈতিক নিস্পত্তি সন্ধানে-আর সেই সঙ্গে দায়য়িশ ও উগ্রপন্থিদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সমর্থন জোগাতেই ওখানে গিয়ে থাকে তো,একেবারেই ভিন্নতরো একটা পথের সম্ভাবনা রয়েছে তাতে-বলেন তিনি।

এই যে বিপুল সংখ্যায় অভিবাসির দল প্রাণ নিয়ে পালাচ্ছে য়ুরোপ অভিমুখে, যার অনেকেই যাচ্ছে সিরিয়া থেকে, কেরী সেটাকে বর্তমান কালের একটা নজির বিহিন ঘটনা বলে অভিহিত করে বলেন-সিরিয়ার এ সহিংস পরিস্থিতি এভাবে যদি চলতেই থাকে তো সিরিয়ার আরো অনেককেই ঐ পথে যেতে দেখা যাবে যে আশংকা তার রয়েছেই।

জাতিসংঘের নিবন্ধীকৃত তালিকা থেকে দেখা যাচ্ছে- সিরিয়া থেকে প্রায় ৪২ লক্ষ শরনার্থী আশপাশের দেশগুলোতে গিয়ে ঠাঁই নিয়েছে – এক তুরস্কেই আশ্রয় নিয়েছে সিরিয়ার ২০ লক্ষের বেশি মানুষ।

য়ুরোপ ও য়ুরেশিয়া বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের এ্যাসিসটেন্ট সেক্রেটারী ভিক্টোরিয়া ন্যুল্যান্ড আজ সোমবার আঙ্কারায় তুরস্কের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হচ্ছেন।আলোচনা হবে শরনার্থী সমস্যা নিয়ে- আলোচনা হবে সিরিয়া-ইরাকে ইসালামিক স্টেইটের সঙ্গে লড়তে যুক্তরাষ্ট্র নেতৃত্বাধীন বাহিনীর অভিযান নিয়ে।

জঙ্গিদের সঙ্গে মিলে লড়তে সিরিয়া যাওয়ার চেষ্টা করছে যারা তাদের বিষয়েও কেরী আলোচনা করবেন। গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি সম্পর্কে কেরী বলেছেন- যুক্তরাষ্ট্র এবং অন্যান্য দেশ এরকম অনেককে প্রতিহত করতে সক্ষম হয়েছে।বিষয়টি বৃটেনেও অনেক গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচিত হচ্ছে।কিশোর বয়সীরা যাতে উগ্রপন্থীদের সঙ্গে যোগ দিতে না পারে সে লক্ষে প্রধানমন্ত্রী ক্যামারোনের নতুন পন্থাদির কথাও শোনা যাচ্ছে এখন।গত এক বছরেই এ ব্যাপারে ৩’শ আটত্রিশ জনকে এ ব্যাপারে আটক করা হযেছে বলে ক্যামারোনের দফতরে হিসেব রয়েছে- এর মধ্যে ১ শ’ ৫৭ জন সিরিয়া সংশ্লিষ্ট সন্ত্রাসে জড়িত ছিলো-৫৬ জন ছিলো ২০ অনূর্ধ বয়সের যুবা-কিশোর।

XS
SM
MD
LG