অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশে কথিত বিচার বহির্ভূত হত্যাকান্ড বন্ধ করার আহ্বান জানিয়েছে হিউম্যান রাইটস ওয়াচ: এ্যাডভোকেসি পরিচালক জন সিফটনের সাক্ষাৎকার

  • রোকেয়া হায়দার

John Sifton, Asia Advocacy Director (HRW.org)

John Sifton, Asia Advocacy Director (HRW.org)

নিউইয়র্কভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচ, তাদের প্রকাশিত এক রিপোর্টে বাংলাদেশে র‌্যাব ও নিরাপত্তা রক্ষীর হাতে, কথিত বিচার বহির্ভূত হত্যাকান্ড বন্ধ করার আহ্বান জানিয়েছে।

বিষয়টি নিয়ে ওয়াশিংটন স্টুডিও থেকে রোকেয়া হায়দার টেলিফোনে কথা বলেন সংস্থার এ্যাডভোকেসি পরিচালক জন সিফটনের সঙ্গে।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচ বলছে, বাংলাদেশে বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ড ভয়াবহ আকার নিয়েছে। সংস্থার ওয়াশিংটন কার্যালয়ে এ্যাডভোকেসি পরিচালক জন সিফটন এই রিপোর্ট সম্পর্কে আমাদের বললেন – ‘আমরা ঢাকা ও তার আশেপাশে বেশ কয়েকজনের সাক্ষতাকার নিয়েছি। প্রত্যক্ষদর্শী এবং যারা এই ধরণের ঘটনার শিকার হয়েছে তাদের সঙ্গে কথা বলেছি। বিরোধী নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করেছি। এবং এটা স্পষ্ট যে সরকার এই ধরণের হত্যাকাণ্ডকে যুক্তিগ্রাহ্য করার চেষ্টা করছে। অনেক মৃত্যুকে ঢাকা দেওয়ার চেষ্টা করছে।

জন সিফটন বলেন, ‘অনেক ক্ষেত্রে অবশ্য এটা সত্যি যে দুই পক্ষে গুলী বিনিময় হয়েছে। তবে র‌্যাবের ক্ষেত্রে এইধরণের হত্যার জন্য গুলী বিনিময়ের একটা যুক্তি তুলে ধরার চেষ্টা থেকে আমরা বুঝতে পারি যে, কিভাবে হত্যা সংঘটিত হয়। র‌্যাবের একটা ইতিহাস আছে, যখন কাউকে মেরে ফেলে, তখন তা যুক্তিসঙ্গত করার জন্য বলে থাকে যে গুলী বিনিময় হয়েছে’।
অনেক সময় নিরাপত্তা বাহিনী বলে থাকে যে তাদের ওপর হামলা চালানো হলে তারা পাল্টা ব্যবস্থা নেয়। এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘হ্যাঁ তা ঠিক। অনেক দেশেই অস্ট্রেলিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, বাংলাদেশ অনেক দেশেই নিরাপত্তা বাহিনী অপর পক্ষের কাছ থেকে হামলার সম্মুখীন হয়, সেটা সত্যি। তবে দিনের পর দিন তো সেটা হতে পারে না।

এ বিষয়ে সরকারের কোন কর্মকর্তার সঙ্গে তাদের আলোচনা হয়েছে কিনা।জন সিফটন জানালেন,‘সময়ের সীমাবদ্ধতা এবং ঢাকার গোলযোগপূর্ণ পরিস্থিতির কারণে আমরা এক একটি ঘটনা নিয়ে কথা বলিনি। এটা হিউম্যান রাইটসের আনুষ্ঠানিক রিপোর্ট নয়, এটা এক প্রেস বক্তব্য। আমরা অতীতে যেমন করেছি, আশা করি যে ভবিষ্যতে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে এ সম্পর্কে আলোচনা করবো। তবে সরকার হিউম্যান রাইটসের সঙ্গে ঠিক ভালভাবে আলোচনা করে না। আমরা যখন র‌্যাবের সহিংসতার ঘটনা তুলে ধরি আমাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয় যে আমরা পক্ষপাতদুষ্ট। বিরোধী বিএনপির সমর্থক। যদিও অতীতে আমরা বিএনপির বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগের ওপর অত্যাচারের কথাও তুলে ধরেছি। আমরা কখনও কোন পক্ষকে সমর্থন করি না।সরকারের জন্য সর্বোত্তম উপায় হচ্ছে, আম্তর্জাতিক পর্যায়ে যে তদন্তের কথা বলা হচ্ছে তা পালন করা’।
XS
SM
MD
LG