অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইয়েমেনি বিদ্রোহীদের প্রতি ইরানের সমর্থণে কেরীর উদ্বেগ


যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রী জন কেরী বলছেন যে ইয়েমেনে শিয়া বিদ্রোহীদের প্রতি ইরানের সমর্থন দেওয়ায় ওয়াশিংটন সরকার খুব উদ্বিগ্ন। এর আগে এ রকম খবর পাওয়া গিয়েছিল যে ইরানের নৌ বহর , পারস্য উপসাগরীয় ঐ দেশটির দিকে রওয়ানা হয়েছে। পিবিএস নিউজ আওয়ারে দেওয়া বক্তব্যে কেরী বলেন যে বিদ্রোহীদের প্রতি ইরানের সমর্থনকে যুক্তরাষ্ট্র খুব নিবীড় ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে যেমন ইরান থেকে আসা জিনিষপত্র এবং ইয়েমেনে প্রতি সপ্তায় যাওয়া ইরানী বিমানের ফ্লাইট সংখ্যা। তিনি বলেন :


মি কেরী বলছেন যে ইয়েমেনকে ইরান যে সমর্থন সহযোগিতা দিচ্ছে সে ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্র অবগত । ইরানের ও এ কথাটা জানা দরকার যে ঐ এলাকা অস্থিতিশীল হয়ে উঠলে , কিংবা লোকজন যখন আন্তর্জাতিক সীমানা পেরিয়ে লড়াইয়ে ল্প্তি হবে তখন যুক্তরাষ্ট্র নীরব দর্শক হয়ে থাকবে না। তবে মি কেরী এ কথা ও বলেন যে যুক্তরাষ্ট্র, যে কীনা অস্ত্র ও গোয়েন্দা দিয়ে এবং অন্যান্য ভাবে আরব কিমান অভিযানকে সমর্থন , সে কিন্তু সংঘাতে জড়াতে চাইছে না। তবে যুক্তরাষ্ট্র তার বন্ধুদের থেকে দূরে সরে যাবে না ।

ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি আজ এক ভাষণে বলেন যে ইয়েমেনে বিমান হামলা , তাঁর কথায় ভুল সিদ্ধান্ত এবং তা সফল হবে না। টেলিভিশনে দেওয়া তাঁর ভাষণে অস্ত্র বিরতির আহ্বান জানানো হয়। ইরানের রিয়ার অ্যাডমিরাল হাবিুল্লাহ সায়ারি বলেছেন যে এই নৌবহর আসলে ইরানের জাহাজ চলাচল পথে সুরক্ষা প্রদান এবং গভীর সমুদ্রে দেশের স্বার্থ রক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। তিনি আরও বলেন যে তাছাড়া বানিজ্যিক জাহাজগুলোকে জলদস্যুদের হাত থেকে রক্ষা করা ও এর উদ্দেশ্যে।

XS
SM
MD
LG