অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

যুক্তরাস্ট্রের পররাস্ট্রমন্ত্রী জন কেরী দক্ষিন এশিয়া ও ইউরোপ সফর করছেন। এ সফর কর্মসূচীর মধ্যে রয়েছে ভারতে বিনিয়োগ সম্মেলনে যোগদান এবং ইরানের পরমানু কর্মসূচী নিয়ে ইরানের পররাস্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনাও। এসব নিয়ে ভয়েস অব আমেরিকার পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয় বিষয়ক সংবাদদাতা পাম ডকিনসের রিপোর্ট শোনাচ্ছেন সেলিম হোসেন।

ভারতের উদ্দেশ্যে রওনা হয়ে জার্মানীর মিউনিখে যাত্রা বিরতীর সময় পররাস্ট্রমন্ত্রী জন কেরী কথা বলছেন ওমানের সুলতানের সঙ্গে।

৬ মাসের মধ্যে জন কেরীর এটি ভারতে দ্বিতীয়বার সফর। তিনি গুজরাতে বিনিয়োগ সম্মেলনে অংশ নিচ্ছেন যার আয়োজক ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্রো মোদী।

পররাস্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র জেন প্সাকি বলেন জন কেরী বিনিয়োগ সম্মেলনে ভারত ও যুক্তরাস্ট্রের ব্যাবসায়ী নেতৃবৃন্দের সঙ্গে পৃথক পৃথক বৈঠক করবেন।

“বৈঠকে ভারতে যুক্তরাস্ট্র কোন কোন খাতে বিনিয়োগ করতে পারে তা নিয়ে আলোচনা করবেন এবং কিভাবে দু’দেশের অংশীদারিত্ব বাড়ানো যায় তাও আলোচনায় স্থান পাবে। তিনি ভারতে নির্মিতব্য ফোর্ড মোটর কোম্পানীর একটি প্ল্যান্ট পরিদর্শন করবেন”।

যুক্তরাস্ট্রের বানিজ্য প্রতিনিধিদের দেয়া সূত্র অনুসারে বিশ্বের দুই বৃহৎ গনতন্ত্রের দেশের বানিজ্য ৯০০০ কোটি ডলার।

উড্রো উইলসন সেন্টারের বিশ্লেষক মাইকেল কুগেলম্যান বলেছেন যুক্তরাস্ট্রের বানিজ্য ভারতের শক্তিশালী শিল্প খাতের সুবিধা নিতে আগ্রহী।

“ভারতের সেবা খাত অনেকদিন ধরে একটি আকর্ষনীয় বিনিয়োগ খাত। ভারতের বহু আইটি প্রতিষ্ঠান রয়েছে যা বিশ্বব্যাপী ইানফোসিস হিসাবে পরিচিত”

ভারতে বিনিয়োগ সম্মেলনের পাশাপাশি জন কেরী ভুটানের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করবেন যা যুক্তরাস্টের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও ভূটানের শীর্ষ কর্মকর্তাদের মধ্যে প্রথম দ্বিপাক্ষিক বৈঠক।

পরে মিষ্টার কেরী জিনিভায় যাবেন। সেখানে ইরানের পররাস্ট্রমন্ত্রী মোহামম্মদ জাভেদ জারিফের সঙ্গে আলোচনায় বসবেন ইরানের পরমানু কর্মসূচী বিষয়ে। ১৫ই জানুয়ারী ইরানের পরমানু কর্মসূচী বিষয়ক চলমান আনুষ্ঠানিক বৈঠকের আগে এটি হবে-প্রাক আলোচনা।

ইরান এবং জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের ৫ স্থায়ী সদস্য ও জার্মানী জুনের মধ্যেই ইরানের পরমানূ কর্মসূচী বিষয়ক চুক্তিতে উপনীত হতে চান সকলেই।

জিনিভায় বৈঠক শেষে জন কেরীর বুলগেরিয়ায় নিরাপত্তা সহায়তা ও দ্বিপাক্খিক বানিজ্য বিষয়ে বৈঠক করবার কথা রয়েছে।

XS
SM
MD
LG