অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ কূটনীতিক- পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরী হঠাত করেই-সবাইকে চমকে দিয়ে হাজির হন সোমালিয়ায় মঙ্গলবারে।যুদ্ধ বিধ্বস্ত দেশটিতে এই প্রথম যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষমতাসীন কোনো পররাষ্ট্রমন্ত্রী সফর করলেন। মোগাদিশু বিমানবন্দরে তিনি প্রায় সাড়ে তিন ঘন্টা সময় অতিবাহিত করেন-ওখানেই তিনি বৈঠক করেন প্রেসিডেন্ট হাসান শেখ মাহমুদের সঙ্গে-কথাবর্তা বলেন প্রধানমন্ত্রী ও অন্যান্য সরকারী কর্তাব্যক্তিদের সঙ্গেও।

নিরাপত্তা ক্ষেত্রে পারস্পরিক সহযোগিতা এবং দু’হাজার ১৬ সালকে সামনে রেখে সোমালিয়ার নিজেরই সংষ্কার ও উন্নয়ন বিষয়ক লক্ষ মাত্রা নিয়ে প্রধানত: আলোচনা কেন্দ্রীভুত থাকে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সোমালিয়ার রাজধানী গত কয়েক বছর যাবত অপেক্ষাকৃত অনেক নিরাপদ হয়েছে- তবে সরকারকে অবশ্য এখনো আল কায়েদা সংশ্লিষ্ট জঙ্গি গোষ্ঠী আস শাবাবের আত্মঘাতি হামলা তত্পরতার মোকাবেলা করতে হচ্ছে।

ওখানে পৌঁছোনোর পর পরই পররাষ্ট্র মন্ত্রী কেরী আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন- সোমালিয়া আরো অগ্রগতি অর্জন করবে এবং পরের বার যখনই আসবো খোলামেলাভাবে শহরের মাঝখান দিয়ে হাঁটতে পারবো সেটাই প্রত্যাশা আমার ।

সোমালিয়ার প্রেসিডেন্ট বলেন- মোগাদিশুর কেন্দ্রাঞ্চল এখন দু’বছর আগের তুলনায় অনেক ভিন্ন- ভালো এখন।

XS
SM
MD
LG