অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশে সাত বছর পর ভোটের মাঠে নৌকা ও ধানের শীষ



নৌকা আর ধানের শীষ। বাংলাদেশের রাজনীতি নিয়ন্ত্রণ করছে এ দুটি প্রতীক। কখনও নৌকা, কখনও ধানের শীষ। সাত বছর পর আজ এ দুটি প্রতীকের মধ্যে লড়াই শুরু হচ্ছে। তবে কোন জাতীয় নির্বাচনে নয়, স্থানীয় সরকার নির্বাচনে। এবারই প্রথমবারের মতো দলীয় প্রতীকে পৌর ভোট হচ্ছে। যেখানে ৭৮ লাখ ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন। ২৩৪টি পৌরসভায় ভোট হচ্ছে। মেয়র পদে ৯৪৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে মহিলা প্রার্থী রয়েছেন ২০ জন। সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ২ হাজার ৪৮০ এবং কাউন্সিলর পদে ৮ হাজার ৭৪৬ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর ১ লাখ ১৭ হাজার সদস্য মোতায়েন থাকবে। নির্বাচন কমিশন বলছে, নির্বাচন হবে অবাধ ও নিরপেক্ষ। কিন্তু বিরোধীরা আশঙ্কা প্রকাশ করেই চলেছেন। তারা বলেছেন, নির্বাচনের আগেই যে পরিবেশ বিরাজ করছে এতে নির্বাচন অবাধ হবে এমনটা আশা করা খুবই কঠিন। স্থানীয় সরকার নিয়ে কাজ করে সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন)। এ সংগঠনটির সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদারও অবাধ ভোটের ব্যাপারে সন্দিহান। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন, নির্বাচনে জিতলেও ক্ষতি নেই, হারলেও ক্ষতি নেই। কারণ এতে করে সরকারের পরিবর্তন হবে না। তার আশা নির্বাচন হবে অবাধ ও নিরপেক্ষ। সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, হারলে আকাশ ভেঙ্গে পড়বে না।

XS
SM
MD
LG