অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ক্যালে জঙ্গলের এতিম শিশুদের নিয়ে প্যারিস-লন্ডন টানাপড়েন চলছে। বৃটিশ সরকার বলছে, এ শিশুদের প্রতি যেন অমানবিক আচরণ করা না হয়। আর এর জবাবে ফ্রান্স বলছে, এতো কথার কি দরকার। সব শিশুকে নিয়ে গেলেইতো সমস্যা চুকে যায়। রেডক্রস বলেছে, এই অনাথ শিশুদের প্রতি মানবিক আচরণ করা হচ্ছে না। প্রচন্ড শীতের মধ্যে সুরক্ষা দেয়া হবে সেটাই ছিল প্রত্যাশিত।
ক্যালে জঙ্গল ভেঙে দেয়ার পর ৬ হাজার শরনার্থীকে ফ্রান্সের বিভিন্ন শহরে স্থাপিত ক্যাম্পে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। এই ক্যাম্পে চিহ্নিত করা হয়েছে ১৩০০ শিশুকে যাদের মা নেই, বাবা নেই। পরিবার পরিজন নেই। নেই কোন ঠিকানা। বেশিরভাগ শিশুকে বৃটেনে নেবে এমনই একটি চুক্তি হয়েছিল।
ফ্রান্সের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, বৃটেনকে অন্তত এক হাজার শিশুকে নিতে হবে। ইতোমধ্যেই তিনশ শিশুকে বৃটেনে আনা হয়েছে। বাকি শিশুদের কি কারণে আনা হচ্ছে না তা কোন দেশের তরফেই খোলাশা করে বলা হচ্ছে না। দু’দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীগণ অন্তত চার দফা কথা বলেছেন। এখন পর্যন্ত কোন সমাধানে উপনীত হতে পারেননি তারা। এই অবস্থায় এই এতিম শিশুরা কোথায় যাবে, কী করবে তা একদম অস্পষ্ট। বৃটিশ রেডক্রসের কর্মকর্তা, অ্যালেক্স ফ্রেজার উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। বলেছেন, কোন শিশু যেন খোলা আকাশের নিচে না থাকে। লন্ডন থেকে মতিউর রহমান চৌধুরী



XS
SM
MD
LG