অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

১২ সদস্যের বৃটিশ-বাংলাদেশী পরিবারটি ইস্তাম্বুল হয়ে সিরিয়া পৌঁছে গেছে


Veiled women sit as they chat in a garden in the northern province of Raqqa March 31, 2014. The Islamic State in Iraq and the Levant (ISIL) has imposed sweeping restrictions on personal freedoms in the northern province of Raqqa. Among the restrictions, W

Veiled women sit as they chat in a garden in the northern province of Raqqa March 31, 2014. The Islamic State in Iraq and the Levant (ISIL) has imposed sweeping restrictions on personal freedoms in the northern province of Raqqa. Among the restrictions, W

বাংলাদেশী পরিবারটি
সিরিয়ায়!
১২ সদস্যের বৃটিশ-বাংলাদেশী পরিবারটি ইস্তাম্বুল হয়ে সিরিয়া পৌঁছে গেছে। এমন ধারণাই করছেন আবদুল মান্নানের ছোটভাই সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ নিবাসী আবদুল লতিফ। ভয়েস অব আমেরিকার এই সংবাদদাতাকে তিনি বলেন, ১৪ই জুন নিখোঁজ হওয়ার পর তার কাছে ফোন এসেছিল। তবে ফোনটি কোথা থেকে এসেছিল তা তিনি বুঝতে পারেননি। ধারণা করছেনÑ সিরিয়া থেকেই। মান্নান তাকে বলেছেন বিপদ কেটে গেছে, নিরাপদেই আছেন। এমনটা জানিয়েছেন।
আবদুল মান্নানের ভাইয়ের ধারণাÑ তার মেয়ে রাজিয়া খানমের কারণেই পরিবারটি সিরিয়া যেতে বাধ্য হয়েছে। রাজিয়া দীর্ঘদিন থেকে আইএস-এর সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করে চলছে। তাকে খুঁজতেই বৃটিশ পুলিশ তাদের লুটনের বাসায় হানা দিয়েছে। হিথ্রো বিমানবন্দরেও তাদেরকে সাত ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছিল। বৃটিশ পাসপোর্টধারী মান্নানের পরিবারটি সবসময় বোরকা পরে থাকতো। হাত-পায়ে মোজা ব্যবহার করতেন সবসময়। ছেলেরাও ছিল ধর্মের প্রতি অন্ধ। উল্লেখ্য যে, ১৯৬২ সালে দুই আনি ভাউচারে লন্ডন যাওয়ার সুযোগ হয়েছিল আবদুল মান্নানের। সেখানেই তার কেটেছে ৫৪ বছর।

ঢাকা থেকে সংবাদদাতা মতিউর রহমান চৌধুরীর রিপোর্টÑ


XS
SM
MD
LG