অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

মিয়ানমারে অসামরিক শাসন ব্যবস্থার অধীনে প্রথম ভোট গ্রহণ


রবিবার মিয়ানমারের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে এবং সরকার এই নির্বাচনকে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন বলে অভিহিত করেছেন। সেখানে ধর্মীয় উত্তেজনার মধ্যেও সামান্য কয়েকজন মুসলিম প্রার্থীও নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন।

বার্মায় পাঁচ দশক যাবত এক সামরিক হুন্তা এককভাবে শাসন করে গেছেন। তারপর ২০১১ সালে তারাই কয়েকজন অসামরিক সদস্যদের বেছে নিয়ে সরকার গঠন করেন। তখন প্রাক্তন এক সামরিক জেনারেল প্রেসিডেন্ট থিয়েন সিন আধা অসামরিক সরকারের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করেন । পার্লামেন্ট নিম্ন সভা প্রতিনিধি পরিষদ আর উচ্চ সভা ন্যাশনালিটিস নিয়ে গঠিত।

এবারের নির্বাচন হবে মিয়ানমারে অসামরিক শাসন ব্যবস্থার অধীনে প্রথম ভোট গ্রহণ।

১৯৬০ সালের পর থেকে - ১৯৯০ সালের মে মাসে প্রথম বহুদলীয় নির্বাচন হয়েছিল, তখন সামরিক স্বৈরশাসকরা ক্ষমতা কেড়ে নেয়। অং সা সু চি তার ২ বছর আগে, তার অসুস্থ মায়ের পরিচর্যার জন্য দেশে ফিরে যান। কিন্তু দেশে সামরিক হুন্তার বিরুদ্ধে বিরাট বিক্ষোভ প্রতিবাদ শুরু হয়ে যায়। ১৯৮৯ সালে সামরিক শাসকগোষ্ঠি তাকে গৃহবন্দী করে। এবং বাইরের জগতের সঙ্গে তার সকল যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। ১৯৯০ সালের নির্বাচনে অং সান সুচির গনতান্ত্রিক জাতীয় লীগ এন এল ডি সংসদের ৮০ শতাংশ আসনে জয়ী হয়। তবে যেমনটি ধারণ করা হয়েছিল সামরিক হুন্তা সেই নির্বাচনের ফলাফল অগ্রাহ্য করে । তারপর ২০১১ সাল থেকে সামরিক হুন্তা বিরোধী দলগুলোর ওপর থেকে ধীরে ধীরে তার বিধিনিষেধ শিথিল করতে শুরু করে।

বর্তমানে সংসদের ৪শো ৯৮টি আসনের জন্য ৯১টি তালিকাভূক্ত রাজনৈতিক দলের ৬ হাজারেরও বেশী প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। যাদের মধ্যে সামান্য কয়েকজন মুসলিম প্রার্থীও রয়েছেন। যেমন ৭১ বছর বয়স্ক খিন মং।। তিনি মান্দালয় চানাইয়েথারযান শহর থেকে নিম্ন সভার আসনের প্রার্থী। তিনি ভয়েস অফ আমেরিকাকে বলেন, মায়ানমারের গোটা মুসলিম সমাজ বর্তমানে দারুণ সমস্যার সম্মুখীন।

গত বছর জুলাই মাসে ধর্ষণের কথিত অভিযোগের পর দাঙ্গা হাঙ্গামা হয়। পরে দেখা যায় যে বৌদ্ধরা সোশ্যাল মিডিয়াতে এই গুজব ছড়িয়েছিল। এনএলডি পার্টিতে মুসলমানদের তেমন প্রতিনিধিত্ব না থাকলেও তারা ওই দলকে সমর্থন করবেন।নি নি কোয়া প্রাক্তন ছাত্র সংগ্রামী ও ইলেকশন অবজারভার নেটওয়ার্ক মান্দালয়ের প্রতিষ্ঠাতা বলেন, সেখানে উগ্রবাদী বৌদ্ধদের Organization for the Protection of Race and Religion গ্রুপ মুসলিম বিরোধী মনোভাব গড়ে তুলছে।

আটলান্টার কার্টার সেন্টার এই নির্বাচন পর্যবেক্ষণ করবে। গতমাসে এই কেন্দ্রের রিপোর্টে বলা হয়, তাদের পর্যবেক্ষকরা দেশের বিভিন্ন জায়গায় রয়েছেন এবং অনেক দল ও লোকজনের কাছ থেকে জাতীয়তাবাদ ও ধর্মীয় বিষয়ে যে বাগাড়ম্বরতা চলছে সে বিষয়ে তাদের উদ্বেগের কথা শুনেছেন।

নির্বাচনের কঠিন পরিস্থিতি সত্ত্বেও, ৬৮ বছর বয়সী মুসলিম ভোটার চিট হুটুন বলেন তিনি খিন মং থিয়েনকেই ভোট দেবেন।

XS
SM
MD
LG