অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ISIL সমুলে বিনাশ করার কথা বললেন সংবাদ সম্মেলনে প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা


শুক্রবার বছরেরর শেষ সংবাদ সম্মেলনে প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা সাংবাদিকদের কাছে তাঁর প্রশাসনের বিগত বছরের অর্জনসমূহ তুলে ধরেন এবং অসমাপ্ত কাজগুলো যেনো ভবিষ্যতে ঠিকমত সম্পন্ন হয় সে আশাবাদ ব্যাক্ত করেন।

সংবাদ সম্মেলনে প্রসিডেন্ট ওবামা ইরান ও কিউবার সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নকে কুটনৈতিক সাফল্য হিসাবে আখ্যা দেন। তিনি তুলে ধরেন জলবায়ু সংক্রান্ত চুক্তি এবং এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় বানিজ্য চুক্তির কথা, সমকামী বিয়ে বৈধ করার বিষয়ে সুপ্রিম কোর্টর রায়ের বিষয় এবং No Child Left Behind আইন নিয়ে কংগ্রেসের পূনর্লিখনের কথা।

প্রেসিডেন্ট বলেন কিছু উদ্বেগের কারন রয়েছে। এর মধ্যে প্রথম হচ্ছে ইসলামিক ষ্টেট জঙ্গী গোষ্ঠির হুমকী এবং ক্যালিফোর্নিয়ার সান বার্নার্ডিনোয় সংগঠিত সাম্প্রতিক সন্ত্রাসি হামলার ন্যায় সম্ভাব্য সন্ত্রাসী হামলা।

যদিও ইসলামিক ষ্টেট দমনে আর্ন্তজাতিক সম্প্রদায়ের সঙ্গে বর্তমান প্রশাসন শক্তভাবে কাজ করে চলছে তার পরও তিনি এ ব্যাপারে সতর্ক থাকার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন। ইসলামিক ষ্টেটকে সংক্ষিপ্ত আকারে ISIL উল্লেখ করে প্রসিডেন্ট ওবামা বলেন;

“সিরিয়া ও ইরাকে ISIL এর মূল শক্ত কমিয়ে দিতে পারলে তারা বিশ্বব্যাপী তাদের সন্ত্রাসী কর্মকান্ড ও অপপ্রচার চালানো কঠিন হয়ে পড়বে”।

“একই সঙ্গে দেশেও আমাদর সতর্ক থাকতে হবে। সেন্দহজনক কিছু দেখলেই তা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জানানোর মাধ্যমে এবং সন্ত্রাসীদের প্রলোভনে পড়া থেকে বিরত থাকার মাধ্যমে এবং আমেরকান পরিবার হিসাবে ঐক্যবদ্ধ থাকার মাধ্যমে আমরা যার যার মতো সতর্ক থেকে এই যুদ্ধ অংশ নিতে পারি”

২০১৫ সালে বর্তমান প্রশাসনের বেশকিছু অর্জনের বিষয় তুলে ধরেন প্রসিডেন্ট ওবামা। এর মধ্যে ছিল বেকারত্বের হার কমানো, শিক্ষার হার বিষয়ক আইন এবং জলবায়ু পরিবর্তন রোধের আইন পাশ করা, ট্রান্স-প্যাসিফিক পার্টনারশীপ আন্তর্জাতিক বানিজ্য চুক্তি পাশ। তিনি বলেন তাঁর স্বাস্থ্যসেবা আইন জনপ্রিয় হচ্ছে এবং এ বছর ৬০ লক্ষ মানুষ এর আওতায় স্বাস্থ্য সেবা পেয়েছেন।

যেসব চ্যালেঞ্জ সামনে রয়েছে সে সম্পর্কে প্রসিডেন্ট বলেন সবচেয়ে কঠিন বাধা হচ্ছে ইসলামিক ষ্টেট সন্ত্রাসী গোষ্ঠীকে পরাজিত করা এবং যুক্তরাষ্ট্রে তাদের সম্ভাব্য সন্ত্রাসী হামলার সম্ভাব্যতা কমানোর চেষ্টা করা।

সিরিয়ার সংঘাত সম্পর্কে প্রেসিডেন্ট ওবামা বলেন সিরিয়ায় শান্ত প্রতিষ্ঠা, রক্তপাত বন্ধ হওয়া এবং সাম্প্রদায়িক সংঘাত বন্ধের লক্ষ্যে প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদকে অবশ্যই ক্ষমতা ছাড়তে হবে। ওবামা বলেন, “তার দেশের সংখ্যাগিরষ্ঠদের মতে তিনি বৈধতা হারিয়েছেন”।

কিউবায় গুয়ান্তানামো কারাগার বন্ধ করার বিষয়ে প্রেসিডেন্ট বলেন তাঁর প্রশাসনের সন্ত্রাস দমন কৌশলের অংশ হিসাবে তিনি কংগ্রেস প্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা বলবেন।

“জিহাদীদেরকে দলে ভেড়ানোর জন্যে জঙ্গীদের অন্যতম প্রধান একটি অজুহাত হচ্ছে গুয়ান্তানামো কারাগার” এমন মন্তব্য করে প্রেসিডেন্ট বলেন তা বন্ধে তিনি কংগ্রেস সদস্যদের সমর্থন চাইবেন; অন্তত যেনো সেনা নিয়ন্ত্রিত ডিটেনশন সেন্টারা বন্ধ করা সম্ভব হয়। আগামী এক বছরে গুয়ান্তানামো কারাগারে ১০০ থেকে কয়েদীর সংখ্যা কমে আসবে বলে আশা করা হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের আইনপ্রনেতারা যুক্তরাষ্ট্রে আসার জন্য আবেদনকৃত বিদেশীদের ভিসা আবেদন পর্যবেক্ষনের প্রক্রিয়া নিয়ে সমালোচনা করেন। প্রেসিডেন্ট বলেন ঐ সমালোচকেরা আশা করি বুঝবেন যে কোনো সরকারের পক্ষেই প্রতিটি ব্যাক্তির সামাজিক মাধ্যমের পোষ্ট ও টেক্সট বার্তা পড়া সম্ভব নয়। তারা পরও, তিনি বলেন, নাগরিকদের স্বাধীনতা সুরক্ষিত রেখে আমেরকানদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে যতদূর নসম্ভব তার প্রশাসন এ লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে।

সংবাদ সম্মেলনের কিছুক্ষন আগে প্রেসিডেন্ট ওবামা বন্দীদের ক্ষমা সংক্রান্ত একটি নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করেন।

ঘন্টাব্যাপী সংবাদ সম্মেলন শেষে ছুটি কাটাতে হাওয়াই যাওয়ার পথে প্রেসিডেন্ট ওবামা ক্যাললিফোর্নিয়ার সান বার্নার্ডিনোয় সন্ত্রাসী হামলায় নিহত ১৪ ব্যাক্তির পরিবারেরর সদস্যদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।

XS
SM
MD
LG