অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ওবামার ভাষণ ছিল প্রায়োগিক ও দিকদর্শনমুলক :ভিওএ'র বিশেজ্ঞ অতিথি বিশ্লেষণ

  • আনিস আহমেদ

ওবামার ভাষণ ছিল প্রায়োগিক ও দিকদর্শনমুলক :ভিওএ'র বিশেজ্ঞ অতিথি বিশ্লেষণ

ওবামার ভাষণ ছিল প্রায়োগিক ও দিকদর্শনমুলক :ভিওএ'র বিশেজ্ঞ অতিথি বিশ্লেষণ

মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা স্টেট অফ ইউনিয়ন স্পিচ বা রাষ্ট্রীয় পরিস্থিতি বিষয়ক যে ভাষণ দিয়েছেন , সে নিয়েই এখনকার এই আলোচনা। এখন টেলি-সম্মিলনী লাইনে আমাদের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন , নিউ ইয়র্ক থেকে জাতিসংঘ উন্নয়ন কর্মসূচির দারিদ্র বিমোচন বিষয়ক পরিচালক , বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ড সেলিম জাহান । আর টেক্সাস এ এন্ড এম ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগি অধ্যাপক ড মেহনাজ মোমিন। আপনাদের দু জনকেই স্বাগত জানাচ্ছি এই আলোচনা অনুষ্ঠানে।

প্রেসিডেন্ট ওবামার ভাষণে যে মূল সুরটা পর্যবেক্ষকরা লক্ষ্য করেছেন, সেটি হলো যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতির উন্নয়ন, দ্বিদলীয় সহযোগিতা, সেই সঙ্গে গবেষণা, উদ্ভাবন, শিক্ষা এবং আগামিতে ও বিশ্বে যুক্তরাষ্ট্রের সম্ভাব্য গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকার কথা। প্রেসিডেন্ট ওবামার এটি ছিল রাষ্ট্রীয় পরিস্থিতি বিষয়ক দ্বিতীয় ভাষণ এবং অতিসম্প্রতি প্রতিনিধি পরিষদে বিরোধী রিপাবলিকানদের সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়ার পর , তাঁর প্রথম ভাষণ কংগ্রেসের এই যৌথ অধিবেশনে। এই অধিবেশনে আমরা এ ও লক্ষ্য করেছি যে অনেক ডেমক্র্যাট ও রিপাবলিকান পাশপাশি বসেছেন হাউজ কক্ষে। এই গোলটেবিল বৈঠকে প্রথমেই ড মেহনাজ মোমিন বলেন যে প্রেসিডেন্ট ওবামার এই ভাষণে রাজনৈতিক বাস্তবতার দিকে তিনি যেমন নজর দিয়েছেন , তেমনি কতগুলো অর্থনৈতিক বিষয় ও তুলে এনেছেন এক সঙ্গে ।

ড সেলিম জাহান উদ্ভাবন, গবেষণা , শিক্ষা ও স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে বিনিয়োগের ব্যাপারে একদিকে যেমন প্রেসিডেন্ট ওবামা অনড় থাকছেন , অন্য দিকে ঠিক তেমনি তিনি ফেডারেল সরকারের ব্যয় হ্রাসের ব্যাপারে রিপাবলিকানদের সঙ্গে অনেকখানি যে সহমত পোষণ করেছেন তার পথচিত্র সম্পর্কে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন যে প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা একটি ভবিষ্যৎমুখি পরিকল্পনা উপস্থাপন করেছেন। যুক্তরাষ্ট্রের মেধা ও মনন , বিজ্ঞান ও উদ্ভাবন , জ্ঞান ও শিক্ষা ক্ষেত্রে বিনিয়োগের আবশ্যকতার ওপর তিনি যেমন জোর দিয়েছেন , তেমনি বিশ্বে প্রতিযোগিতার জায়গাগুলিতে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের শ্রেয়তার কথা ও উল্লেখ করেছেন।

ড মেহনাজ মোমিন এ ব্যাপারে সহমত পোষণ করেন যে যে মি ওবামার ভাষণে এক ধরণের আপোষের আভাষ পাওয়া গেছে এবং সেটা না করে তার কাছে বিকল্পও কিছু ছিল না যদিও এই আপোষ ছিল শর্তসাপেক্ষ। প্রতিপক্ষকে তিনি খনিকটা ছাড় দিয়েছেন , কিন্তু সেই সঙ্গে নিজেও অনড় থেকেছেন কোন কোন বিষয়ে ।

প্রেসিডেন্ট ওবামার এবারকার এই রাষ্ট্রীয় পরিস্থিতি বিষয়ক ভাষণকে ড সেলিম জাহান ও ড মেহনাজ মোমিন , দু জনই অত্যন্ত ইতিবাচক ভাবে বিশ্লেষণ করেছেন। তাঁরা বলেছেন যে দ্বিদলীয় সহযোগিতা , স্বাস্থ্য পরিচর্যা আইনের ব্যাপারে গঠনমুলক পরিবর্তন সাধন করতে তিনি যেমন বিরোধীদের দাবির প্রতি সম্মান প্রদর্শন করেছেন, তেমনি এ কথাও বলেছেন যে স্বাস্থ্য পরিষেবা পাবার অধিকার ও সুযোগ থেকে তিনি কাউকে বঞ্চিত করতে চান না। সার্বিক ভাবে তাঁর এই ভাষণ উদ্দীপনামুলক হয়ত ছিল না , কিন্তু ভাষণে ছিল প্রায়োগিক দিকদর্শন।

XS
SM
MD
LG