অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বলেছেন, তিনি এ বছরের শেষ নাগাদ যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক অভিযান শেষ হবার পর আফগানিস্তানে ৯হাজার ৮শ আমেরিকান সেনা রাখতে চান। এবং ২০১৬ সালের শেষ নাগাদ প্রায় সকল সেনাই প্রত্যাহার করতে চান।

মঙ্গলবার হোয়াইট হাউসে দেওয়া এক ভাষণে, মিঃ ওবামা বলেছেন, এখন গত এক দশকেরও বেশি সময় ধরে যা চলছে তার পাতা ওল্টানোর সময় হয়েছে। গত এক দশক ধরে আমাদের পররাষ্ট্রনীতিতে প্রাধান্য পেয়েছে আফগানিস্তান ও ইরাকের যুদ্ধ।

আফগানিস্তানে এখন যুক্তরাষ্ট্রের ৩২ হাজার সৈন্য রয়েছে। অভিযান যখন তুঙ্গে তখন ১লক্ষ সেনা সেখানে ছিল। যুক্তরাষ্ট্রের গত ১৩ বছরের আল-কাইদার বিরুদ্ধে অভিযানের অংশ হিসেবে তাঁদের সেখানে পাঠানো হয়। যুক্তরাষ্ট্রে ২০০১ সালে যে সন্ত্রাসী হামলায় ৩হাজার মানুষ মারা যায়, আল-কাইদা তার জন্যে দায়ী ছিল।

মিঃ ওবামা বলেছেন, ২০১৫ সালের শুরুতে আফগানিস্তানে আমেরিকান বাহিনীর সেনাসংখ্যা হবে ৯হাজার ৮শ। এক বছর পরে তা অর্ধেক নেমে আসবে। এবং ২০১৭ সালের শুরুর দিকে তা গিয়ে দাঁড়াবে ১ হাজারেরও কমে। ২০১৭ সালের গোড়ার দিকে প্রেসিডেণ্ট ওবামার মেয়াদ শেষ হবে। তিনি বলেছেন, এই সৈন্যদের প্রত্যাহার করা হবে, যখন আফগানরা তাদের নিজেদের নিরাপত্তা ও আল-কাইদার বিরুদ্ধে লড়াইয়ের দায়িত্ব বুঝে নিতে থাকবে।

মিঃ ওবামা বলেছেন, “এভাবেই ২১ শতকে যুদ্ধের অবসান হয়। কোন আনুষ্ঠানিক চুক্তি সাক্ষরের মাধ্যমে নয়। বরং শত্রুপক্ষের বিরুদ্ধে জোরালো পদক্ষেপ নিয়ে, নির্বাচিত সরকার এবং নেতৃত্ব দেবার ও সম্পূর্ণ দায়িত্ব নেবার প্রশিক্ষণ রয়েছে এরকম নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে দায়িত্ব হস্তান্তরের মাধ্যমে”।

তিনি বলেছেন, আফগানিস্তানে যে ৯হাজার ৮শ সেনা রয়ে যাবেন তাঁদের দায়িত্ব হবে, আফগান বাহিনীকে প্রশিক্ষণ দেওয়া, এবং অবশিষ্ট আলকাইদার বিরুদ্ধে সন্ত্রাস-বিরোধী অভিযানে সাহায্য করা, অবশ্যই তাতে যদি নতুন আফগান নেতার সম্মতি থাকে।

মিঃ ওবামা বিদায়ী আফগান প্রেসিডেণ্ট হামিদ কারজাইয়ের সঙ্গে নতুন নিরাপত্তা চুক্তিতে সাক্ষরে ব্যর্থ হয়েছেন। কিন্তু জুনের ফিরতি নির্বাচনের দুই প্রেসিডেণ্ট পদপ্রার্থী আব্দুল্লাহ আব্দুল্লাহ এবং আশরাফ ঘানি বলেছেন, নির্বাচিত হলে, ঐ চুক্তি তাঁরা সাক্ষর করবেন।

২০১৫ সালে যে আমেরিকান সেনারা রয়ে যাবেন তাঁরা NATO বাহিনীর সঙ্গে পুরো আফগানিস্তান জুড়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকবেন। ২০১৬ সালে যে ১ হাজার সেনা রয়ে যাবেন তাঁরা আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে একটি নিরাপত্তা কার্যালয়ে কাজ করবেন। অনেকটা ইরাক যুদ্ধ শেষ হবার পর যেভাবে যুক্তরাষ্ট্র ইরাকে তার কার্যক্রম পরিচালনা করছে।

মিঃ ওবামা, নিউ ইয়র্কের U.S. Military Academyতে বিস্তারিত পররাষ্ট্রনীতিবিষয়ক ভাষণ দেবার একদিন আগেই আফগান বাহিনী সংক্রান্ত তাঁর এই পরিকল্পনার কথা ঘোষণা করলেন।
XS
SM
MD
LG