অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

স্বাস্থ্যের উপর মেক্সিকো সাগরের তেল নিঃসরণের প্রতিক্রিয়া


স্বাস্থ্যের উপর মেক্সিকো সাগরের তেল নিঃসরণের প্রতিক্রিয়া

স্বাস্থ্যের উপর মেক্সিকো সাগরের তেল নিঃসরণের প্রতিক্রিয়া

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা গত সপ্তাহের গোড়ার দিকে যুক্তরাষ্ট্রের সেনেট কমিটির কাছে মেক্সিকো উপসাগরে তেল নিঃসরণের প্রতিক্রিয়ার উপর তাদের একটি প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন। তারা বলেন স্বাস্থের উপর এর প্রতিক্রিয়া কি কি হতে পারে, সেটা জানতে বহু মাস, এমনকি বছর ও লেগে যেতে পারে। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা সেনেটারদের বলেছেন যারা স্থানীয় বাসিন্দা কিংবা তেল নিঃসরণ পরিস্কার করার কাজে নিয়োজিত, তাঁদের উপর উপসাগরের এই তেল নিঃসরনের ঠিক কি প্রতিক্রিয়া পড়বে, সে সম্পর্কে এখনই পূর্বাভাষ দেওয়া সম্ভব নয়।

এখানকার National Institute for Occupational Safety & Health -এর পরিচালক জন হাওয়ার্ড বলছেন এমনিতে স্বাস্থ্য সম্পর্কিত কিছু সাধারণ অভিযোগ অবশ্য তেমন গুরুতর নয়। তিনি বলেছেন ঐ অপরিশোধিত তেলে নানান রকম রাসায়নিক পদার্থ থাকায় প্রাথমিকভাবে চামড়ার সমস্যা এবং শ্বাস নেওয়ায় কষ্ট হতে পারে। কাজেই এ ধরণের তেলের সঙ্গে সরাসরি সংযোগ এড়াতে হবে এবং যদি চামড়ায় তেল লাগে তবে সেই সব জায়গাকে ভাল ভাবে ধুতে হবে। অপরিশোধিত তেলের সংস্পর্শে এলে চোখ, নাক এবং গলায় অস্বস্তি দেখা দিতে পারে।

ডঃ হাওয়ার্ড বলছেন বমির ভাব, মাথা ব্যথা, এমনকি দীর্ঘ মেয়াদে মানসিক অস্বস্তিও হতে পারে। এই নিঃসরণ যারা পরিস্কার করছে সমুদ্র উপকূলে, তারা প্রচন্ড তাপের ব্যাপারেও অভিযোগ করেছে। এ ধরণের কর্মিদের চিকিৎসার জন্যে একটি ভ্রাম্যমান স্বাস্থ্য ক্লিনিকও খোলা হয়েছে। স্বাস্থ্য কর্মিরা বলছেন বিশেষত শিশুরা ঝুঁকির সম্মুখীন হতে পারে।

ডঃ হাওয়ার্ড আরো বলেন, শিশুদের শ্বাস প্রশ্বাস এবং তার মেটাবলিজমের হার অনেক বেশি। সুতরাং তারা যদি সেই রকম দূষিত পরিবেশের মুখোমুখি হয়, তাহলে তারা বিষাক্ত বাতাস সেবন করবে এবং যেমনটি আমরা জানি যে খুব ছোট শিশুদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা খুবই কম এবং তারা সহজেই আক্রান্ত হতে পারে।

আবার এই আসন্ন ঝড়ের মৌসুমে স্বাস্থের ঝুঁকিটা আরো খানিকটা জটিল হয়ে পড়বে বলে আশংকা করা হচ্ছে। আইওয়া অঙ্গরাজ্যের সেনেটর টম হার্কিন বলেছেন ‘হারিকেনের মতো ঘুর্ণি ঝড়ের ব্যাপারে আমাদের একটা প্রস্তুতি পরিকল্পনা রয়েছে তবে এর সঙ্গে যে এখন তেল নিঃসরণের বিষয়টি যুক্ত হয়েছে, তার কতখানি সমাধান হবে সেটা বলা যায় না’।

কমিটির ঐ শুনানীতে অংশগ্রহণ করছেন স্বাস্থ্য বিষয়ক যে সব বিশেষজ্ঞ, তাঁরা বলছেন এই সব রাসায়িনক নিঃসরণ আর কতদিন বিষাক্ত হয়ে থাকবে। তবে স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা নিরপেক্ষ একদল বিশেষঞ্জের প্যানেল গঠনের কথা বলছেন যারা স্বাস্থের ওপর এই নিঃসরণের ব্যাপক প্রভাব নিয়ে গবেষণা করবেন।

XS
SM
MD
LG