অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

প্রস্তুতি শুরু করেছেন টেরিসা মে। কাল সন্ধ্যায় তিনি বৃটেনের দ্বিতীয় মহিলা প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন। মার্গারেট থ্যাচার ছিলেন প্রথম বৃটিশ মহিলা প্রধানমন্ত্রী। ডেভিড ক্যামেরন ১০ ডাউনিং স্ট্রিট ছাড়ার ঘোষণা দেন সোমবার দুপুরে। আজ সর্বশেষ মন্ত্রিসভার বৈঠকেও যোগ দেন তিনি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী টেরিসা মে’র প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন জ্বালানি মন্ত্রী অ্যান্ড্রিয়া লিডসম। অনেকটা নাটকীয়ভাবে তিনি প্রধানমন্ত্রীর দৌঁড় থেকে নিজেকে গুটিয়ে নেন। এরপরই টেরিসা মে’র প্রধানমন্ত্রী হওয়ার সব বাধা দূর হয়ে যায়। টেরিসা মে বলেছেন, তিনি খুব আনন্দিত ও সম্মানিত বোধ করছেন। ব্রেক্সিট বিরোধী হিসেবে খ্যাত টেরিসা বলেছেন, জনরায় অক্ষরে অক্ষরে পালন করবেন। উপহার দেবেন নতুন এক বৃটেন।

অক্সফোর্ড গ্র্যাজুয়েট টেরিসা অন্যতম বান্ধবী ছিলেন পাকিস্তানের প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভুট্টো। বৃটিশ সংবাদ মাধ্যমের খবর, বেনজিরই ফিলিপ মে’র সঙ্গে টেরিসা কে পরিচয় করিয়ে দিয়েছিলেন। প্রথমে প্রেম, এরপর পরিণয়। ব্যাংকার স্বামীকে নিয়ে ভালই আছেন নিঃসন্তান টেরিসা।

XS
SM
MD
LG