অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বালিতে কুখ্যাত অপরাধী ছোটা রাজনের গ্রেপ্তার হওয়া নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে


সোমবার ইন্দোনেশিয়ার বালিতে কুখ্যাত অপরাধী ছোটা রাজনের গ্রেপ্তারি আসলে ভারতীয় পুলিশের সঙ্গে বোঝাপড়া করে আত্মসমর্পণ নয় তো? এমন প্রশ্নের পেছনে রয়েছে ভারত থেকে পলাতক তিন বড় অপরাধী ছোটা রাজন, ছোটা শাকিল আর দাউদ ইব্রাহিমের মধ্যে সম্পর্কের জটিলতা ও তাকে কাজে লাগিয়ে অন্যান্য অপরাধীদের ধরবার জন্য ভারতীয় নিরাপত্তা সংস্থাদের কৌশল। একটি তত্ব হল, আদতে দাউদের প্রতিশোধ থেকে বাঁচতেই রাজন ধরা দিল। বাকি জীবনটা ভারতের জেলে কাটাতে হলেও প্রাণের আশঙ্কা তো থাকবে না। তাই হয়তো বোঝাপড়া করেই এই আত্মসমর্পণ। পাল্টা তত্ব হল, রাজন ইদানীং আর ভারতীয় পুলিশের কথা শুনছিল না বলেই তাকে আটকের উদ্যোগ নেন ভারতীয় আধিকারকেরা। দাউদ এখন পাকিস্তানে রয়েছে বলেই ভারতের দাবি। তবে ভিন দেশে থেকেও ভারতের অপরাধ জগতের সঙ্গে দাউদের ভালই যোগাযোগ রয়েছে বলেই পুলিশের ধারণা।

XS
SM
MD
LG