অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আদালতের নিষেধাজ্ঞায় আটকে গেল বাংলা চলচ্চিত্র রানা প্লাজা


আদালতের নিষেধাজ্ঞায় আটকে গেল বাংলা চলচ্চিত্র রানা প্লাজা। সাভারের রানা প্লাজা ধসের ঘটনা নিয়ে নির্মিত চলচ্চিত্রটি আগামী ৪ঠা সেপ্টেম্বর মুক্তি পাবার কথা ছিল। আদালতে একটি রিট। তারপর নিষেধাজ্ঞা। এখন দেশ-বিদেশের কোন প্রেক্ষাগৃহ বা অন্য কোন মাধ্যমে ছবিটি দেখানো যাবে না। ন্যাশনাল গার্মেন্টস এমপ্লয়ীজ লীগের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম রনি রিট আবেদন করেন। রিটে মূল বক্তব্য হচ্ছে, ১৯৭৭ সনের ফিল্ম সেন্সর রুলস অনুযায়ী কোনো ভীতিকর দৃশ্য প্রদর্শন বা দেখানো যাবে না। রানা প্লাজা সিনেমায় বিভিন্ন ভীতিকর দৃশ্য রয়েছে। রিট আবেদনকারীর পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপস ও মেহেদী হাসান।
বিচারপতি নাঈমা হায়দার ও বিচারপতি জামান ইসলামের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ থেকে এই আদেশ এসেছে। ফিল্ম সেন্সর বোর্ড ছবিটি প্রদর্শনের জন্য সার্টিফিকেট দিয়েছিল। হাইকোর্টের রুলে সেন্সর সার্টিফিকেট কেন বাতিল করা হবে না তা জানতে চাওয়া হয়েছে। আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে তথ্য সচিব, চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের চেয়ারম্যান এবং চলচ্চিত্রটির প্রযোজককে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। এই চলচ্চিত্রের পরিচালক নজরুল ইসলাম খান জানান, রানা প্লাজা ধসের ১৭ দিন পর উদ্ধার হওয়া নারী কর্মিকে নিয়ে এ চলচ্চিত্র নির্মান করা হয়। মতিয়ুর রহমান চৌধুরীর রিপোর্ট:

XS
SM
MD
LG