অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

রাত পোহালেই রিও অলিম্পিকের উদ্বোধন। কিন্তু ভারতীয় সময় ভোর সাড়ে চারটেয় উদ্বোধনী অনুষ্ঠান দেখতে কত জন ভারতীয় ঘুম ভেঙে ওঠবার কষ্টটুকু করবেন? কিংবা, রোজকার খেলাগুলো? বিশ্বকাপ ফুটবলের সময় রাত জাগতে অন্তত কলকাতার মানুষের আপত্তি ছিল না। তবে অলিম্পিক নিয়ে এমন উদাসীনতা কেন? বরং ফুটবলের তুলনায় হকি ও অ্যাথলেটিকস-এ ভারতীয়দের কিছু কিছু সাফল্য রয়েছে। তবু ফুটবল আর ক্রিকেট ছাড়া অন্যান্য খেলাধুলোয় ভারতীয়দের আগ্রহ সত্যিই কম। ২০১২-র লন্ডন অলিম্পিকে ভারতের সংগ্রহ ছিল মাত্র দুটি রূপো আর চারটি ব্রোঞ্জ মেডেল। এ বার দলে ১১২ জন ক্রীড়াবিদ, প্রত্যাশা আরও বেশি পদকের। অতীতে পি টি উষা কিংবা মিলখা সিং-এর মত প্রতিযোগীরা চতুর্থ স্থান পেয়ে অল্পের জন্য পদক হারিয়েছেন। কানের পাশ দিয়ে সাফল্য বেরিয়ে গিয়েছে আরও কয়েকজন ক্রীড়াবিদের। এ বার কি ভাগ্য সুপ্রসন্ন হবে? সাফল্য আসতে শুরু করলেই কি ভারতীয়রা আগ্রহ দেখাবেন অলিম্পিক নিয়ে?

XS
SM
MD
LG