অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

জঙ্গি সংগঠন সদস্যদের হাত ধরেই ভারত বাংলাদেশ সীমান্তে গোরু পাচারের ব্যবসা রমরমা


প্রতিবেশী রাষ্ট্র বাংলা দেশের জঙ্গি সংগঠন জামাত উল মুজাহিদিনের (জুম) সদস্যদের হাত ধরেই রাজ্যের ভারত বাংলাদেশ সীমান্তে গোরু পাচারের ব্যবসা রমরমা চলছে। দুই বাংলায় জেহাদি কার্যকলাপ চালানোর জন্য তারা এই চোরাচালানের ব্যাবসাকেই হাতিয়ার করেছে। ব্যাবসার পুরোটাই তারা নিয়ন্ত্রণ করছে। এই অবৈধ কারবারের মাধ্যমেই তাদের যাতায়াত বাড়ছে এ রাজ্যে। বেশ কিছু রাজনৈতিক নেতা জুমের সদস্যদের এই গোরু পাচারের ব্যাবসায় সক্রিয়ভাবে সাহায্য করছে। এমনকী বাংলাদেশে গুলশান মডিউলের বেশ কিছু সদস্য গোরু পাচারের মাধ্যমেই এখানে ঢুকেছে বলে খবর। সম্প্রতি এমনই তথ্য এসেছে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা ও ন্যাশনাল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সির (এনআইএ) হাতে। খবর পেয়ে পুলিশ সক্রিয় হওয়ায় অস্থিরতা তৈরির জন্য জঙ্গিরা সীমান্ত এলাকায় বেশ কয়েকটি থানায় হামলার ছক কষেছে বলে গোয়েন্দারা জানতে পেরেছেন। বিষয়টি নিয়ে উদ্বিগ্ন দিল্লি। গোরু পাচারের ক্ষেত্রে রাজ্য কী ব্যবস্থা নিয়েছে এবং কারা ধরা পড়েছে, সেই বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য চেয়ে পাঠিয়েছে তারা। উদ্দেশ্য, এই চোরাচালান বন্ধ করে জুমের কার্যকলাপ ঠেকানো এখনই প্রধান ও প্রথম কাজ বলে খবর ।পরমাশিস ঘোষরায়ের রিপোর্ট:

XS
SM
MD
LG