অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

মনে করা হচ্ছে রুশ সামরিক বাহিনীর একটি যানবহর ক্রাইমার রাজধানী সিমফোরোপল এর কাছে একটি ঘাঁটিতে প্রবেশ করেছে।

রয়টার বার্তা সার্ভিস , যারা ঐ সব যানবাহনের ছবি তুলেছে এবং রুশ যানবাহন বলে সনাক্ত করেছে, তারা বলছে যে ঐ যানবহরে ছিল আটটি সাজোঁয়া গাড়ি , দুটি অ্যাম্বুলেন্স এবং জ্বালানী তেলবাহি ট্যাঙ্কার। দ্য অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস বলেছে যে ঐ গাড়িগুলি একটি সামরিক বিমান ক্ষেত্রের দিকে এগিয়ে যায় যেখানে রুশ পতাকা উড়ছিলো।

রাশিয়া এ কথা অস্বীকার করেছে যে ক্রাইমিয়ায় অবস্থিত কৃষ্ন সাগরের নৌবহর ছাড়া সেখানে তার আর কোন সৈন্য আছে।

এর আগে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান যে ইউরোপে নিরাপত্তা ও সহযোগিতা বিষয়ক সংগঠন OSCE এর একটি আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষক দলকে ক্রাইমিয়ায় প্রবেশের অনুমতি না দেওয়ার সময়ে রুশ সৈন্যরা ফাঁকা গুলি চালায়। এ নিয়ে পর পর তৃতীয় দিনের মতো তাদের ঐ অঞ্চলে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি।

রুশ পন্থি সৈন্যদের আজকের এই সর্ব সাম্প্রতিক ঘটনার পর OSCE টুইটারে বলেছে যে ঐ পর্যবেক্ষক দলটি দক্ষিণ ইউক্রেনের খেরসন শহরে ফেরত যাবে।
আজই পোল্যান্ডের পররাষ্ট্র মন্ত্রী রাদোসলো সিকোরস্কি ঘোষণা করেছেন যে তার দেশ রুশ সৈন্যদের অব্যাহত গোলোযোগের কারণে সেভাস্তোপলে তাদের কন্সুলেট খালি করে দিয়েছে।


এদিকে ইউক্রেনের ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্র মন্ত্রী আন্দ্রিল দেশচিতসিয়া, সে দেশের সংকটের অবসানের জন্যে শান্তিপূর্ণ ও কুটনৈতিক নিস্পত্তির আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন যে এমন সব সম্ভাবনাকে ইউক্রেন স্বাগত জানাবে যার ফলে একটা বাস্তব সম্মত ফলাফল পাওয়া যায় তবে তিনি জোর দিয়েই বলেন যে ক্রাইমিয়া ইউক্রেনেরই অঞ্চল এবং তা ইউক্রেরে অঞ্চল হিসেবেই থাকবে।

হোয়াইট হাউজ এক বিবৃতিতে বলছে যে রাশিয়াকে তার সৈন্য সরিয়ে নিতে , আন্তর্জাতিক ও মানবাধিকার পর্যবেক্ষক মোতায়েনে সম্মত হতে এবং মে মাসের অবাধ ও নিরপেক্ষ প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে সমর্থন করতে , ইউরোপীয় নেতাদের আহ্বানের সঙ্গে প্রেসিডেন্ট একমত পোষণ করেন।
XS
SM
MD
LG