অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

সিঙ্গুরে জমি অধিগ্রহণ ও ফেরতের এক দশক


Mamata

Mamata

বুধবার পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সিঙ্গুরের জমিহারাদের হাতে তুলে চলেছেন ১০ বছর আগে টাটা মোটর্স-এর গাড়ি কারখানার জন্য অধিগৃহীত কৃষিজমির মালিকানার কাগজপত্র। পুরো এক দশক পরে একটি বৃত্ত যেন পূর্ণ হল। জমি অধিগ্রহণ নিয়ে প্রথমে আন্দোলন, তারপর মামলার শেষে অধিগ্রহণকে সুপ্রিম কোর্ট বেআইনি বলে রায় দেওয়ার পরেই এই জমি ফেরত।কয়েকটি বাস্তব তথ্য কিন্তু কৌতূহলদ্দীপক। সিঙ্গুরের ৯৯৭ একর জমির মালিকানা ছিল মোট ১৩,২৯১ জন কৃষকের হাতে। এর মধ্যে অধিগ্রহণের পরে ক্ষতিপূরণের টাকা নিয়ে নেন ১০,৫৮২ জন যাঁদের জমির পরিমাণ কম-বেশি ৭০০ একর। বাকি ২৪৩ একর জমির মালিকানা যে ২,২০০ জনের, তাঁদের মধ্যে বেশিটা জমিরই সমস্যা ছিল শরিকী বিবাদ ও নানা আইনি জটিলতার হেতু। মাত্র ৪২ একর জমির মালিকেরাই জমি দেওয়ার অনিচ্ছায় ক্ষতিপূরণ নিতে অস্বীকার করেন। তার মানে, ৯৯৭ একর নয়, তার মধ্যে মাত্র ৪২ একর জমির মালিকেরা জমি দিতে চাননি বলেই এত আন্দোলন ও আইনি যুদ্ধ যার শেষে সকলকেই জমি ফেরতের অনুষ্ঠান হচ্ছে বুধবার।
সে সম্পর্কে আমাদের কলকাতা সংবাদদাতা গৌতম গুপ্তের রিপোর্ট।

XS
SM
MD
LG