অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

শরনার্থীকে ২৮টি সদস্য দেশের মধ্যে ভাগাভাগি করে আশ্রয় দেবার যে প্রস্তাব গৃহিত হয়েছিলো এখন সেটা খারিজ করার জন্যে আহ্বান জানানো হচ্ছে


Serbia Migrants

Serbia Migrants

জাতিসংঘের শরনার্থী সংস্থা UNHCR বলছে- শরনার্থী যাঁরা দেশ ছেড়ে-ভেটেমাটি পেছনে ফেলে পালিয়ে য়ুরোপ পানে ধেয়ে আসছেন তার বেশির ভাগই আসছেন প্রাণভয়ে- যুদ্ধের, হানাহানির বিভিষিকার কারনে।এঁরা সন্ত্রাসী নন-এঁরা উপায়ান্তর না দেখে,বাধ্য হয়ে,বিপথে-অবৈধ পন্থায় য়ুরোপ উপকূল পানে পালিয়ে আসছেন।

UNHCR মূখপাত্র মেলিসা ফ্লেমিং বলছেন- অনেকেই পালিয়ে আসছেন চরমপন্থীদের ভয়ে-সন্ত্রাসবাদের কারনে, প্যারিসের সন্ত্রাসী হামলা ঘটিয়েছে যারা তাদেরই মতো মানুষের কারনে।

য়ুরোপের বেশ কয়েকটি দেশ এখন আশ্রয় প্রার্থীদের নিতে রাজি হচ্ছেনা ।এক লক্ষ ষাইট হাজার শরনার্থীকে ২৮টি সদস্য দেশের মধ্যে ভাগাভাগি করে আশ্রয় দেবার যে প্রস্তাব গৃহিত হয়েছিলো এখন সেটা খারিজ করার জন্যে আহ্বান জানাচ্ছে তারা।যুক্তরাষ্ট্রেরও বেশ কয়েকটি রাজ্যের গভর্ণরেরাও – শরনার্থীরা তাঁদের রাজ্যে অনাকাংখিত বলে বলছেন।

ফ্লেমিং বলছেন- গ্রীস ও ইটালী থেকে আসবার পর ঐসব শরনার্থী সম্পর্কে ভালোভাবে খোঁজখবর করার- পুংখানুপুংখভাবে সব কিছু খতিয়ে দেখার প্রস্তাব করছে শরনার্থী সংস্থা।

XS
SM
MD
LG