অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইরাকের শরণার্থীদের কাছে মানবিক সাহায্য পাঠানো অব্যাহত রেখেছে যুক্তরাষ্ট্র


ইরাকের শরণার্থীদের কাছে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনী আরো মানবিক সাহায্য পৌঁছে দিয়েছে। এই শরণার্থীরা উত্তর ইরাকে কুর্দী রাজধানী ইরবিলের কাছে, পার্বত্য এলাকায় আশ্রয় নিয়েছে।

বিমান থেকে এই সামগ্রী ফেলা হয়। এর মধ্যে ছিল ৫২হাজার খাবারের সামগ্রী এবং হাজার হাজার লিটারের সুপেয় পানি। ইসলামিক স্টেইটের যোদ্ধাদের সহিংস আগ্রাসনে ভীত হয়ে এই খ্রিশটান, ইয়াযিদি ও অন্যান্য ধর্মীয় সংখ্যালঘুরা সেখানে আশ্রয় নিয়েছে। বৃটিশ বাহিনী রোববার তাদের প্রথম মানবিক সাহায্য পাঠিয়েছে।

ঐ অঞ্চলের কর্মকর্তারা রোববার বলেছেন, সিঞ্জার পর্বতে আটকে থাকা অন্তত ৫ হাজার বেসামরিক ইরাকী সিরিয়াতে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে। পরে তারা কুর্দী বাহিনীর সহায়তায় নিরাপদে উত্তর ইরাকে ফিরে আসে।

শনিবার, যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনী ইসলামিক স্টেইটের জঙ্গীদের বিরুদ্ধে চার দফা বিমান হামলা চালিয়েছে। ঐ জঙ্গীরা, উত্তর ইরাকে বেসামরিক ইরাকীদের ওপর হামলা চালাচ্ছিল।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেণ্ট বারাক ওবামা শনিবার বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের বিমান হামলায় ইসলামিক স্টেইট জঙ্গীদের অস্ত্র ও সরঞ্জাম ধ্বংস হয়ে গেছে। তারা সেগুলো ইরবিলের বিরুদ্ধে ব্যবহার করত। তিনি আরো বলেছেন, কয়েক সপ্তাহে এই সমস্যার সমাধান হবে না। এর জন্যে সময়ের প্রয়োজন।

মিঃ ওবামা বলেছেন, বৃটেন ও ফ্রান্সের নেতারা শরণার্থীদের সাহায্য করার জন্যে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে যুক্ত হবার ব্যাপারে সম্মত হয়েছেন।

ইরাক পরিস্থিতি নিয়ে জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি-মুন গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।

XS
SM
MD
LG