অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বিশ্বব্যাপী সুশাসনের অভাব রয়েছে: যুক্তরাষ্ট্রের ২০১৫ সালের মানবাধিকার রিপোর্ট


যুক্তরাষ্ট্রের ২০১৫ সালের মানবাধিকার রিপোর্টে বিশ্বব্যাপী সুশাসনের অভাব. সন্ত্রাসী গোষ্ঠির বর্বরতা বৃদ্ধি এবং কর্তৃত্ববাদী সরকার দ্বারা নাগরিক সমাজকে কোনঠাসা করার প্রবণতা বৃদ্ধির কথা তুলে ধরা হয়। ভয়েস অব আমেরিকার সংবাদদাতা নিক চিং এর রিপোর্ট থেকে তথ্য নিয়ে মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস এ্যান্ড পিস এর প্রেসিডেন্ট এ্যাডভোকেট মঞ্জিল মোরশেদ এর সঙ্গে কথা বলে রিপোর্ট করছেন সেলিম হোসেন।

ইরাক ও সিরিয়ায় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপর ইসলামিক ষ্টেট জঙ্গী গোষ্ঠির গণহত্যা কার্যক্রম, ইউরোপ ও মধ্যপ্রাচ্যে শরনার্থী এবং মানবিক সংকট, বিভিন্ন দেশে নাগরিক সমাজের ওপর নির্যাতনসহ বিশ্বব্যাপী মানবাধিকার লংঘনের কথা তুলে ধরা হয় যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের ২০১৫ সালের মানবাধিকার রিপোর্টে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরী বলেন এসব খুব পীড়াদায়ক, “২০১৫ সালের সবচেয়ে নাটকীয় ও আলোচিত মানবাধিকার লংঘন হয় মধ্যপ্রাচ্যে যাতে বিভিন্ন স্থানের সন্ত্রাস ও সিরিয়ার সংঘাত মিলিত হয়ে মানুষের অপার ভোগান্তি হয়”।

রিপোর্টে আফ্রিকায় হিংস্র মৌলবাদী গোষ্ঠির লোমহর্ষক পাশবিকতার কথা উল্লেখ করে সেখানে বোকো হারাম ও আল শাবাব জঙ্গী গোষ্ঠী নির্মূলে, শুশাষন প্রতিষ্ঠার ওপর গুরুত্ব আরোপ করা হয়।

তুলে ধরা হয় চীন, তুরস্ক, রাশিয়া, ইরান এবং কিউবায় গনমাধ্যম, নাগরিক সমাজ ও সমালোচকদের রওপর নির্যাতনের কথা। তবে জন কেরী বলেন, অগ্রগতিও হচ্ছে: “তিউনিসিয়া, নাইজেরিয়া, শ্রীলংকা ও বার্মায় গণতান্ত্রিক অগ্রগতি পরিলক্ষিত হয়েছে; যদিও অনেক বাধা বিপত্তি রয়েছে। সেগুলো অতিক্রম করতে ঐসব দেশগুলোকে সহায়তা করতে তাদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করছি আমরা”।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচের ওয়াশিংটন শাখার পরিচালক সারাহ মার্গন বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র নীতি সুবিন্যাস্ত করার ক্ষেত্রে মানবাধিকার বিষয়টির প্রভাব রয়েছে।

“আমার মতে একটি উদ্বেগের বিষয় হচ্ছে যদিও এই রিপোর্ট অত্যন্ত নির্ভূল এবং পরিচ্ছন্ন। কিন্ত ঠিক যেভাবে তা ব্যাবহার হওয়ার কথা তা ঠিক হয় না”।

রিপোর্টে বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতির নানা সমালোচনা করা হয়। বিষয়টি নিয়ে কথা বলেন মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস এ্যান্ড পিস এর প্রেসিডেন্ট এ্যাডভোকেট মঞ্জিল মোরশেদ।

বাংলাদেশে হত্যা গুমসহ মানবাধিকার পরিস্থিতির দুর্বল দিকগুলো উল্লেখ করে করে এ্যডভোকেট মনজিল মোরশেদ আশা করেন সরকার সেদিকে খেয়াল করে তা ঠিক করে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করবেন।

কংগ্রেসের নির্দেশে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের ৪০ তম মানবাধিকার রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়।

XS
SM
MD
LG