অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি দক্ষিণ সুদানের দুই যুদ্ধরত পক্ষকে শান্তি অন্বেষণ করার জন্যে নতুন করে আহবান জানিয়েছেন।

শনিবার, আদ্দিস আবাবায় এক ভাষণে, কেরি দক্ষিণ সুদানের প্রেসিডেণ্ট সালভা কির ও বিদ্রোহী নেতা রিক মাশারকে সরাসরি আলোচনায় বসার জন্যে চাপ দেন। এই পদক্ষেপ কয়েক মাস ধরে যে মারাত্মক সহিংসতা চলছে তার অবসান ঘটাতে পারে।

মিঃ কেরি বলেন, “সহিংসতা নিরসনে যদি দুপক্ষ জোরালো পদক্ষেপ না নেয় তাহলে, তারা দক্ষিণ সুদানকে আরো বেপরোয়া পরিস্থিতি এমনকি দুর্ভিক্ষের মুখে ঠেলে দিতে পারে। এই দুর্ভিক্ষ খুব দূরে নয়, যদি না আমরা তা রোধ করি। আমরা যদি এখনই কোন পরিবর্তন না আনতে পারি তাহলে, তারা যার জন্যে লড়াই করছে বলে দাবী করে তা পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে যাবে”।

দুইনেতা যাতে ইথিওপিয়ায় শান্তি আলোচনায় যোগ দেন তারই প্রচেষ্টা হিসেবে, মিঃ কেরি শুক্রবার দক্ষিণ সুদানে মিঃ কিরের সঙ্গে দেখা করেন ও পরে মাশারের সঙ্গে টেলিফোনে আলাপ করেন।

ঐ ভাষণে, যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি আরও বলেছেন, “নাইজেরিয়ার শত শত মেয়েকে অপহরণ একটি বিবেকহীন অপরাধ। ঐ অপহৃত মেয়েরা যাতে বাড়িতে ফিরে আসতে পারে সেজন্যে যুক্তরাষ্ট্র নাইজেরিয়া সরকারকে যথাসাধ্য সাহায্য করবে”।

গত মাসে একটি মাধ্যমিক স্কুল থেকে প্রায় ২শ ৭৬জন ছাত্রীকে বন্দুকধারীরা অপহরণ করে।

মিঃ কেরি এখন তাঁর আফ্রিকা সফরের অংশ হিসেবে ইথিওপিয়ায় আছেন। তাঁর এই সফরে নিরাপত্তা ও মানবাধিকারের বিষয়গুলো প্রাধান্য পাচ্ছে।

আল-কাইদা সংশ্লিষ্ট জঙ্গী দল আল-শাহাবের মোকাবিলায় সোমালিয়ার প্রচেষ্টা নিয়ে আলোচনার জন্যে, ইথিওপিয়ার রাজধানীতে, মিঃ কেরি সোমালিয়ার প্রেসিডেণ্ট হাসান শেইখ মোহামুদের সঙ্গে সাক্ষাত করেন।

এরপর মিঃ কেরি গণপ্রজাতন্ত্রী কঙ্গো সফর করবেন। কঙ্গোর রাজধানীতে তিনি প্রেসিডেণ্ট জোসেফ কাবিলার সঙ্গে দেখা করবেন। উত্তেজনাপূর্ণ কঙ্গোর পূর্বাঞ্চলে বিদ্রোহীদের মোকাবিলায় নিরাপত্তা বাহিনীর সাম্প্রতিক সাফল্য নিয়ে তাঁরা আলোচনা করবেন।
XS
SM
MD
LG