অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

যুক্তরাষ্ট্রের বিধায়করা আর্থিক অচলাবস্থা নিরসনের চেষ্টায় ব্যস্ত


যুক্তরাষ্ট্র সেই কথিত ফিসকাল ক্লিফ বা অর্থনৈতিক বিপর্যয়ের মুখে এসে দাঁড়িয়েছে যেখানে নব বর্ষের দিন থেকে সবার কর বৃদ্ধি পাবে এবং ব্যয় সঙ্কোচন ঘটবে। তবে এখন ও হোয়াইট হাউজ এবং কংগ্রেসের নেতাদের মধ্যে শেষ মূহর্তের আলাপ আলোচনা চলছে।

আজ সোমবার বিধায়করা আবারও বৈঠকে বসছেন । আজই হচ্ছে অধিকাংশ আমেরিকান কর্মজীবিদের জন্যে কর বৃদ্ধি এবং বাধ্যতামূলক ভাবে সরকারী ব্যয় সঙ্কোচনের শেষ দিন। বিশ্লেষকরা বলছেন যে এ ব্যাপারে কোন সমঝোতা না হলে , কুচ্ছ্রতার পদক্ষেপের কারণে , যুক্তরাষ্ট্র আরেকটি মন্দা অবস্থার সম্মুখীন হতে পারে।

ভাইস প্রেসিডেন্ট , ডেমক্র্যাট দলীয় জো বাইডেন এবং সেনেটে সংখ্যালঘু রিপাবলিকান নেতা মিচ ম্যাককনেল সমঝোতার বিস্তারিত বিষয় নিয়ে রোববার শেষ রাত পর্যন্ত দরকষাকষি করেন। তবে ব্যয় হ্রাস সহ কোন ব্যাপারেই আপাত দৃষ্টিতে কোন রকম ঐকমত্য প্রতিষ্ঠিত হয়নি। ব্যয় সঙ্কোচন হলে গুরুত্বপূর্ণ প্রতিরক্ষা খাতে এবং অন্যান্য অভ্যন্তরীণ কর্মসূচিতে খরচ কমাতে হবে। তবে সেনেটে সংখ্রাগরিষ্ঠ নেতা, ডেমক্র্যাট হ্যারি রীড বলেন যে তাঁরা সমতার ভিত্তিতে , সামগ্রিক সমঝোতার অংশ হিসেবে কিছু কঠিন ছাড় দিতে রাজী কিন্তু কোন স্বল্প মেয়াদিসমঝোতার অংশ হিসেবেও তারা সামাজিক সুরক্ষার বিষয়ে কোন ছাড়া দিতে রাজি নন। অন্যদিকে রিপাবলিকান দল থেকে তার প্রতিপক্ষ সেনেটর মিচ ম্যাকনেল বলেন যে এমন কোন ইস্যু নেই যে ব্যাপারে আপোষ করা যায় না। তবে সমস্যাটা হচ্ছে মনে হয় আপোষ করার ইচ্ছের অভাব এবং এটি সম্পন্ন করার ব্যাপারে আগ্রহের অভাব।

হোয়াইট হাউজ দুটি বিতর্কিত বিষয়ে নমনীয় হয়েছে। তারা যে দম্পতি বছরে সাড়ে চার লক্ষ ডলার পর্যন্ত উপার্জন করে থাকে তাদের জন্যে বর্তমান করের হার বহাল থাকবে। এর আগে বছরে যারা আড়াই লক্ষ ডলারের উপরে উপার্জন করেন , তাদের জন্যে কর বৃদ্ধির প্রস্তাব করেছিণ হোয়াইট হাউজ । হোয়াইট হাউজ রিপাবলিকানদের এই দাবি ও মেনে নিয়েছে যে যার উত্তরাধিকার সুত্রে বিপুল সম্পদ অর্জন করেছে তাদের জন্যে করের পরিমাণ অপরিবর্তিত রাখার ব্যাপারে সেনেটে ভোটাভুটি হবে।

XS
SM
MD
LG