অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক এফবিআই পরিচালক জেমস কোমিকে চাকরীচ্যুত করে আবারও প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প বিতর্কের বাড়িয়ে তুলেছেন। এই বছরের গোড়ার দিকে ঐ দু’জনের মধ্যকার ব্যক্তিগত পর্যায়ের কথাবার্তার একটি ঘটনা যে গোপনে রেকর্ড করা হয়েছে সেটাই এর জন্য পরোক্ষভাবে দায়ী। শুক্রবার সকালে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প টুইট বার্তায় বলেছেন, কোমি সংবাদমাধ্যমকে কিছু জানানোর আগে এটা জানা উচিত যে ‘আমাদের মধ্যকার কথাবার্তার কোন গোপন টেপ নেই।’

ট্রাম্প মঙ্গলবার কোমিকে বরখাস্ত করেছেন। ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার হ্যাকিং এবং মস্কোর সংগে ট্রাম্প প্রচার অভিযানের সম্ভাব্য যৌথ যোগসাজশ ছিল--- ঐ তদন্তের প্রধান ছিলেন জেমস কোমি । হোয়াইট হাউজের কর্মকর্তারা জোর দিয়ে বলেছেন, যে রাশিয়া বিষয়ক তদন্ত এবং কোমিকে বরখাস্ত করার সংগে কোন সম্পর্ক নেই । তবে বৃহস্পতিবার নিউ ইয়র্ক টাইমসে প্রকাশিত এক রিপোর্টে বলা হয়েছে যে কোমির সংগে এক নৈশভোজে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প কোমিকে তার প্রতি অনুগত থাকার জন্য শপথ নিতে বলে ছিলেন।

বিতর্কের প্রায় সবটাই দেখা দিয়েছে হোয়াইট হাউজে কোমি এবং ট্রাম্পের মধ্যকার নৈশভোজকে ঘিরে। ঐ রিপোর্টে বলা হয়েছে যে কোমি শপথ নিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছিলেন তবে তিনি জোর দিয়ে বলেছেন যে তিনি ট্রাম্পের প্রতি অনুগত থাকবেন।

XS
SM
MD
LG