অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

জন কেরী বলেন ইউরোপীয় নেতৃবৃন্দ যেসব সমস্যা মোকাবেলা করছেন তা নিরসনে যুক্তরাষ্ট্র সর্বতভাবে সহায়তা করবে


যুক্তরাস্ট্র ও ইউরোপের মধ্যে শক্তিশালী সম্পর্ক বিদ্যমান উল্লেখ করে যুক্তরাস্ট্রের পররাস্ট্রমন্ত্রী জন কেরী বলেছেন ভবিষ্যতে রাশিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়ন ও শরনার্থী সমস্যা মোকাবেলায় তা কার্যকর ভূমিকা রাখবে। মিউনিখে মিউনিখে নিরাপত্তা সম্মেলনে দেয়া বক্তব্যে জন কেরী এসক কথা বলেন। ভয়েস অব আমেরিকার সংবাদদাতার পাঠনো তথ্য থেকে শোনাচ্ছেন সেলিম হোসেন।শনিবার মিউনিখে নিরাপত্তা সম্মেলনে দেয়া বক্তব্যে জন কেরী বলেন ইউরোপীয় নেতৃবৃন্দ যেসব সমস্যা মোকাবেলা করছেন তা নিরসনে যুক্তরাষ্ট্র সর্বতভাবে সহায়তা করবে।

“এটি প্রায় নিশ্চিতভাবে বলা যায় যে এখন একসঙ্গে যেভাবে নানাবিধ সমস্যার আমরা যৌথভাবে মোকাবেলা করছি তা আগে কখনো হয়নি। ইউরোপের সঙ্গের ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে সফল হওয়ার ব্যাপারে প্রেসিডেন্ট ওবামার এবং সকল আমেরিকানের দৃঢ় আস্থার সঙ্গের একমত পোষন করে আমি বলতে চাই যে তারা যদি ঐক্যবদ্ধ থাকেন এবং প্রচলিত সংকটসমূহ সমাধানে যৌথ প্রয়াসে অংশ নেনন তবে আগামী দিনে ইউরোপ সবচেয়ে শক্তিশালী অবস্থায় থাকবে।

এর আগে শনিবার মিউনিখে আরেকটি অনুষ্ঠানে দেয়া বক্তব্যে রাশিয়ার প্রধামন্ত্রী দিমিত্রি মেদভেদেভ সেটোর নীতিমালার সমালোচনা করেন এবং অভযোগ করেন যে পশ্চিমা বিশ্ব একটি শিতল যুদ্ধের দিকে এগুচ্ছে। কেরী বলেন, “এটি আজ ষ্পষ্ট যে অনেক আগেই শিতল যুদ্ধের অবসান ঘটেছে এবং এখন শান্তি প্রতিষ্ঠায় আমাদের সর্বসম্মতভাবে ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টা চালানো দরকার”।

“আমাদের প্রয়োজন একটি গনতান্ত্রিক ইউক্রেন প্রতিষ্ঠায় প্রয়াস চালানো। কিয়েভের কেন্দ্রীয সরকার এবং পূর্ব ইউক্রেনের ক্রেমলিন সমর্থিত বিচ্ছিন্নতাবাদীদের মধ্যেকার সংকট নিরসনে ইউরোপের প্রচেষ্টার প্রশংসা করেন জন কেরী।

তিনি বলেন, “ইউক্রেন সংকট নিরসনে মিনস্ক চুক্তি সম্পূর্নভাবে বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত ইউরোপ এবং যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা বলবত রাখাসহ ঐক্যবদ্ধভাবে প্রচেষ্টা চালিয়ে যবে”।

গত বছরে ফ্রান্স এবং জার্মানীর মধ্যস্থতায় বেলারুশ হওয়া ঐ শান্তি চুক্তির বরাত দিয়ে জন কেরী বলেন, “রাশিয়ার একমাত্র পথ হচ।চে মিনস্ক চুক্তর পূর্ন বাস্তবায়ন অন্যথায় অর্থনৈতিক নিষেধাজ্হা মোকাবেলা করা”।

যুক্তরাষ্ট্রের এই শীর্ষ কুটনীতিক বলেন ইউক্রেনের ডনবাস অঞ্চল থেকে রাশিয়ার অস্ত্রশস্ত্র এ সেনা সিরয়ে নিতে হবে। ইউক্রেনের সকল জিম্মি ফেরত দেয়া নিশ্চিত করতে হবে। সেখানকার সকল নিয়ন্ত্রিত অঞ্চলে মানবিক সাহায্য পৌছানোর নিশ্চয়তা বিধান করতে হবে, ডনবাসে অবাধ ও মক্তি নির্বাচনের সহায়তা করতে হবে এবং ইউক্রেনের সীমান্তে তাদের নিয়ন্ত্রন ফিরিয়ে দিতে হবে।

নেটোর সেনা বহরের উন্নয়নে সাহায্য করার লক্ষ্যে ২০১৭ সালে যুক্তরাষ্ট্র ইউরোপের জন্যে সেনা সহায়তা ৩৪০ কোটি ডলার বৃদ্ধি করবে।

রাশিয়ার নেটোর এই পরিকল্পনাকে ইউরোপের স্থিতিশীলতার প্রতি হুমকী আখ্যা দিয়েছে। নেটো বলেছে নতুন পরিকল্পনার লক্ষ্য হচ্ছে পূর্ব ইউরোপকে রাশিয়ার প্রভাবমুক্ত করা।

XS
SM
MD
LG