অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

রাসায়নিক হামলার আলামত নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে ফিরছেন জাতিসংঘ দল


সিরিয়ান সরকারের সন্দেহভাজন রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারের জবাবে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সিরিয়ায় সম্ভাব্য সেনা অভিযানের পরিকল্পনা’র প্রেক্ষিতে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বিশ্ব শক্তিসমূহকে ধীরে সুস্থে ভেবে চিন্তে সিদ্ধান্ত নেয়ার আহবান জানিয়েছেন।

শনিবার মিষ্টার পুতিন বলেন সিরিয়ায় বিদেশী সেনা অভিযান চালানো হবে বোকামী। কারন সিরিয়ান সরকারী বাহিনী বিদ্রোহীদের দমনে ব্যস্ত। তিনি বলেন জাতিসংঘ রাসায়নিক অস্ত্র বিশেষজ্ঞ দল দামেস্কে তদন্ত কাজ শেষ করে ইতিমধ্যেই সিরিয়া ত্যাগ করেছেন। তাদের তদন্ত ফলাফল প্রকাশ করা পর্যন্ত তিনি যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি অপেক্ষা করার আহবান জানান।

দামেস্ক এবং এর আশেপাশে রাসায়নিক হামলার সন্দেহভাজন এলাকাসমূহ থেকে জাতিসংঘ তদন্ত দল নমুনা সংগ্রহ করেছে। তারা শীঘ্রই জাসিংঘ মহাসচিব বানকি মুনের কাছে রিপোর্ট করবেন।

এদিকে শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরী বলেছেন গত সপ্তাহে সিরিয়ান সরকার যে রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করেছে, যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দাদের কাছে সে ব্যপারে নির্ভরযোগ্য তথ্য প্রমানাদি রয়েছে। সিরিয়ান প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদ এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

প্রেসিডেন্ট ওবামা জাতিয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা ও আইনপ্রণেতাদের সাথে বৈঠক করছেন। তিনি বলেছেন তিনি সীমিত ও সংকীর্ন বিকল্পের কথা বিবেচনা করছেন। হোয়াইট হাউজ সূত্র জানিয়েছে শীর্ষ জাতিয় নিরাপত্তা কর্মকর্তারা শনিবার সিরিয়া সরকারের রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার বিষয়টি নিয়ে নেটে নের্তৃবৃন্দের সঙ্গে কথা বলছেন।

ওদিকে অপর এক খবরে বলা হয়েছে বিরোধী সিরিয়ান ন্যাশনাল কোয়ালিশন এবং দামেস্কে কিছু সাধারন মানুষ বলছেন কোন প্রকার বিদেশী সেনা অভিযানের বিরুদ্ধে ঢাল হিসাবে ব্যবহারের জন্য সিরিয়ান সরকারী বাহিনী রাজনৈতিক বন্দীদেরকে ব্যবহার করার পরিকল্পনা করছে।
XS
SM
MD
LG