অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

হ্যালো ওয়াশিংটনঃ দক্ষিণ এশিয়ায় নারীর প্রতি অবিচার এবং এর প্রতিকার


আপনাদের জিজ্ঞাসা আর আমাদের জবাবের অনুষ্ঠান হ্যালো ওয়াশিংটনের আজকের আলোচ্য বিষয় “দক্ষিণ এশিয়ায় নারীর প্রতি অবিচার এবং এর প্রতিকার” আজ আমাদের অতিথী প্যানেলে রয়েছেনঃ

ঢাকা থেকে ডঃ ফষ্টিনা পেরেইরা। তিনি BRAC-এর হিউম্যান রিইটস এন্ড লিগাল এইড সার্ভিস কার্যক্রমের পরিচালক এবং মানবাধিকার কর্মী। ভারতের নতুন দিল্লী থেকে যোগ দিচ্ছেন সাংবাদিক চিত্রিতা সান্যাল। তিনি জি নিউজ 24-এর নতুন দিল্লী ব্যুরো চিফ। বাংলাদেশ থেকে আমাদের সংগে আর যোগ দিচ্ছেন মোতাহার আখান্দ। তিনি আইন ও সালিশ কেন্দ্রের একজন সিনিয়ার মানবাধিকার কর্মী।

বিশ্বব্যাপী সর্বত্রই মানুষের প্রতি অন্যায়-অবিচার চলছে---নারী-পুরুষ, শিশু-কিশোর নির্বিশেষে। জাতিসংঘের পরিসংখ্যান অনুযায়ী বিশ্বের শতকরা ৭০ ভাগ নারী কমবেশী নির্যাতনের শিকার হয়। সাম্প্রতিক কালে বেশকিছু পৈশাচিক ঘটনায় এই প্রশ্নটি আর প্রকট হয়ে দেখা দিয়েছে যে নারীর প্রতি আচরণ সঠিক ভাবে হচ্ছে কিনা? ২০১২ সালের ডিসাম্বর মাসে দিল্লীর রাজপথে বাসের ভেতরে গণধর্ষণ এবং এর পর বীরভূমের সুবল পঞ্চায়েতের ঘটনা পাকিস্তান ও আফগানিস্তানে ধর্মের নামে নারীর ওপরে চাপানো হচ্ছে নানা নিয়ম-কানুন। সর্বোপরি বাংলাদেশে নিজগৃহ থেকে শুরু করে আপিস-আদালত, স্কুল-কলেজে নানা ভাবে নারীরা নির্যাতিত হচ্ছেন এবং কিছু কিছু ক্ষেত্রে এসিড দগ্ধ হবার মতন ভয়ংকর সব ঘটনা সহ মৃত্যুর হুমকিও দেওয়া হচ্ছে।


এইসব ঘটনার পরিপ্রক্ষিতে আজকের হ্যালো ওয়াশিংটন। আমাদের শ্রোতাদের প্রশ্নের জবাবে প্যানেলিস্টদের মন্তব্যের মধ্যে আমরা খোঁজার চেষ্টা করছি এর জবাব।
XS
SM
MD
LG