অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আন্তর্জাতিক নারী দিবস নিয়ে ভয়েস অফ এ্যামেরিকার আজকের সাক্ষাত্কার

  • VOA Editor

মার্চের আট তারিখে, বিশ্বের বহূ দেশেই আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত হয়ে থাকে। দেশে দেশে-ইতিহাসের ধারাবাহিকতায় নারী অগ্রগতি ও অর্জনকে কেন্দ্র করে পালিত হয় দিনটি।

অতীতের সংগ্রাম –প্রতিবন্ধক অতিক্রমন এবং প্রাপ্তি নিয়েও কথা হয় এ দিনে,নারীদের জীবনমানের শ্রীবৃদ্ধি কিভাবে অর্জিত হতে পারে-সুযোগ সুবিধের ব্যবস্থাদি কি কি হতে পারে-বিচার বিবেচনা হয় তা নিয়েও।

১৯ শ’ ৪৫ সালে স্যান ফ্র্যান্সিসকোয় সাক্ষরিত জাতিসংঘ সনদে সেই প্রথম নারী পুরুষের সম অধিকারের দাবিতে ঐকমত্য প্রতিষ্ঠিত হয়েছিলো।কিন্তু তার পরেও মেয়েদেরকে অনেক ত্যাগ-তিতিক্ষা-সংগ্রামের মধ্যে দিয়ে এগুতে হয়েছে- তার পরেও, এখনো অর্জন বাকি রয়েছে বিস্তর।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র নীতির অগ্রাধিকার সূচক বিষয়গুলোর সাফল্যজনক অর্জনের জন্যে নারী সমাজের- কন্যা সন্তানদের অবস্থানের শ্রীবৃদ্ধি অতীব গুরুত্বপুর্ন।যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা বিষয়ক কর্মকৌশলে বলা রয়েছে-নারীরা পরিপুর্ন এবং সমানাধিকার এবং সমান সুযোগ সুবিধে পেলেই বিভিন্ন দেশে আরো শা্ন্তিপুর্ন ও সমৃদ্ধিশালী অগ্রগতির উদ্ভব ঘটতে পারে।এর প্রমান সূস্পষ্টভাবে প্রতিভাত। গবেষনায় দেখা গিয়েছে- নারী কর্ম সংস্থানে-নারীদের স্বাস্থ খাতে-নারী শিক্ষাবাবদে বিনিয়োগ যেসব দেশে রয়েছে সেসব দেশে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বেশি দেখা যায় – স্বাস্থ ও শিশুসন্তানদের শিক্ষাও সেখানে উন্নততর।

যুক্তরাষ্ট্র নারী উন্নয়ন খাতে বিনিয়োগ করে কেবল এজন্যেই নয় যে ওটাই নৈতিক পথ- বরং এজন্যেও যে ওটাই কৌশলগত দিক দিয়েও অন্যতম প্রকৃষ্ট একটি পন্থা।

বস্তুত: নারীরাই একটি দেশের অন্যতম অব্যবহৃত এক সম্পদ বিশেষ যাঁরা কিনা নিজেদের আয়ের ৯৭ শতাংশ পর্যন্ত বিনিয়োগ করে থাকেন নিজেদের পরিবার পরিজন ও সমাজ-সম্প্রদায়ের জন্যে।মা যদি শিক্ষিত হন- তাহলে তাঁর সন্তানদের শিক্ষালাভের, প্রাণবন্ত হওয়ার এবং স্বাস্থ সুন্দর জীবনধারণের সম্ভাবনাও হয় বেশি।মেয়েরা যখন একটি দেশের অর্থনৈতিক জীবনধারায় অবাধে শরিক হতে পারেন টেকসই উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির শিকড় তখন শক্তপোক্তভাবে প্রথিত হওয়ার সম্ভাবনা উজ্বল হয় ওঠে।

একটি সমাজ যেখানে শ্রীবৃদ্ধি অর্জনে উন্মূখ নারী সমাজের ক্ষমতায়ন সেখানে অনিবার্য রূপ ধারণ করে – পুরুষ সমাজ যা যা অধিকার ভোগ করে থাকে নারীদের জন্যেও সেসব সুযোগ সৃষ্টির প্রণোদনা তখন অবশ্য করনীয় হয়ে ওঠে।

আজ এই আন্তর্জাতিক নারী দিবসে আমরা নারীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করছি-অভিনন্দন জানাচ্ছি তাঁদের । একই সঙ্গে এমোন এক বিশ্ব গড়ার প্রত্যয় দৃপ্ত শপথে উদ্বুদ্ধ হচ্ছি আমরা যেখানে নারীরা উপেক্ষিত হবেন না-প্রান্তীক অবস্থানে নীত হবেননা- পরিপুর্ণ সম্ভাবনার আলোয় উজ্বলতর হওয়ার সুযোগ পাবেন তাঁরা অবাধে।

XS
SM
MD
LG