অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বিশ্বকাপ ক্রিকেট।

কলকাতায় টেলিফোনের অপর প্রান্তে রয়েছেন সাংবাদিক-ভাষ্যকার জয়ন্ত চক্রবর্তী।

প্রথমটার মতো দ্বিতীয় সেমিফাইনালও দারুণ উত্তেজনাপূর্ণ হবে, সেটাই দর্শকভক্তদের আশা ছিল। কিন্তু ভারত যে এত সহজে হাল ছেড়ে দিতে পারে, তা মনে করেনি কেউ। আরেকটি বিষয় অস্ট্রেলিয়া টসে জিতে ভারতকে সম্ভবতঃ কিছুটা দমিয়ে দিয়েছিল কি?

জয়ন্ত –

আচ্ছা, শক্তি-দুর্বলতার কথা বিচার করলে দুটি দলের মধ্যে খুব সামান্যই পার্থক্য ছিল। লড়াকু মনোভাবও কারও চেয়ে কারও কোনও অংশেই কম নয়। এখন অস্ট্রেলিয়া কেন, মানে কি কি কারণে এই ম্যাচ জিতলো বলে আপনার ধারণা? জয়ন্ত -

খেলার আগে কিন্তু দুদিকেই ৫০ - ৫০ শতাংশের মতো জয়ের সম্ভাবনা ছিল বলে বলা হচ্ছিল। কারণ, বর্তমানে ভারতের পারফর্ম্যান্স এবং ভারতীয় ক্রিকেটারদের লড়াকু মনোভাব দেখে বলা হচ্ছিল তারা সহজে অস্ট্রেলিয়াকে ছেড়ে দেবে না। কিন্তু তা হলো না। আর ফাইনালে দুই স্বাগতিক দল খেলবে দক্ষিণ এশিয়ার কোন দলই রইলো না।

জয়ন্ত -

আরেকটি কথা ৩শো রাণের টার্গেট ভারতের জন্য খুব কঠিন কিছু ছিল না। তবে ধোনি এবং ভারত যেন খেলার মাঝামাঝি পিছিয়ে পড়লো। মনোযোগের অভাব দেখা গেছে। আর বিরাট কোহলির মতো একজন দুর্দান্ত ব্যাটসম্যানের বড় ইনিংসও দেখা হলো না। কোহলি ও যেন ফর্মে ছিল না।

আসলে টস-ই এই ম্যাচের ফলাফল অর্ধেকের বেশি ঠিক করে দিল। এই পরিবেশে, ভারত এই সুবিধাটা পেল না বলেই শেষ পর্যন্ত লড়তেও পারল না। ধোনি টস জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিলে ম্যাচের ফলাফল হয়তো ভিন্ন হতো।

এখন ফাইনালের দিকে সবার দৃষ্টি। রবিবার দুই স্বাগতিক দেশের মধ্যে খেলা দক্ষিণ এশিয়ার কোন দলই ফাইনালে নেই।

XS
SM
MD
LG