অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

থাইল্যান্ডের সামরিক অভ্যুত্থানের নেতারা বলছেন, ক্ষমতাচ্যুত প্রধানমন্ত্রী ইয়াংলাক শিনোয়াতসহ কয়েকজনকে নিরাপদ স্থানে রাখা হয়েছে, এবং চিন্তা করার জন্যে যাতে সময় পাওয়া যায় তাই, তাঁদের প্রায় এক সপ্তাহ পর্যন্ত আটক রাখা হতে পারে।

একজন সামরিক মুখপাত্র এক সংবাদ সম্মেলনে শনিবার বলেছেন, চাপ কমানো ও সরকার এবং সরকার-বিরোধী বিক্ষোভকারীদের মধ্যে একটি রাজনৈতিক সমঝোতায় পৌঁছোনোর লক্ষ্যে এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। সরকার-বিরোধী বিক্ষোভকারীরা রাজপথে আন্দোলন চালাচ্ছিল।

শনিবার পর্যন্ত আটককৃতদের অবস্থা সম্পর্কে তেমন কিছু জানা যায়নি। থাইল্যান্ডে সামরিক বাহিনীর অভ্যুত্থানের আজ দুদিন পূর্ণ হলো।

সাংবাদিক সম্মেলন চলাকালে, কারফিউ থাকা সত্ত্বেও ব্যাংকক জুড়ে, বিক্ষোভকারীরা সামরিক অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে।

সামরিক বাহিনীর আদেশ মোতাবেক, মিজ ইয়াংলাক এবং অন্যান্যরা, শুক্রবার ব্যাংককের একটি সামরিক স্থাপনায় পৌঁছন। পরে, সামরিক কর্মকর্তাদের উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়, তিনি এখন সামরিক বাহিনীর জিম্মায় আছেন। ওদিকে স্থানীয় মিডিয়া বলছে, তিনি সহকারীরা তাঁর ব্যক্তিগত জিনিসপত্র ব্যাংককের বাইরে একটি সামরিক ঘাঁটিতে নিয়ে যাচ্ছিল। আটককৃতদের কারো সাথেই বাইরের কারো যোগাযোগ নেই।

ওদিকে, যুক্তরাষ্ট্র থাইল্যান্ডের ৩৫ লক্ষ ডলার সামরিক সাহায্য স্থগিত করেছে। এবং বলেছেন, তারা আরো ৭০ লক্ষ ডলার সাহায্যের বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করছে, দেখছে সেখানেও সাহায্যের পরিমাণ হ্রাস করা হবে কিনা।
XS
SM
MD
LG