অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

অ্যান্টিবডি টেস্টের অনুমতি দিয়েছে সরকার


অ্যান্টিবডি টেস্টের অনুমতি দিয়েছে সরকার

করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্তে অ্যান্টিবডি টেস্টের অনুমতি দিয়েছে সরকার। বিশেষজ্ঞরা দীর্ঘদিন থেকে অ্যান্টিবডি টেস্টের কথা বলে আসছিলেন।

করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্তে অ্যান্টিবডি টেস্টের অনুমতি দিয়েছে সরকার। বিশেষজ্ঞরা দীর্ঘদিন থেকে অ্যান্টিবডি টেস্টের কথা বলে আসছিলেন। রোববার স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, আজ থেকে করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালগুলোতে এই টেস্ট করা যাবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও জানান, আগামীকাল ভারতের সিরাম ইন্সটিটিউট থেকে ৫০ লাখ ডোজ টিকা আসবে। এই টিকা বাণিজ্যিক চুক্তির ভিত্তিতে আনা হচ্ছে। সিরাম ইন্সটিটিউট তিন কোটি ডোজ টিকা সরবরাহ করবে। এর আগে গত ২১শে জানুয়ারি ভারত সরকারের পক্ষ থেকে উপহার হিসেবে ২০ লাখ ডোজ টিকা আসে। ২৭শে জানুয়ারি থেকে টিকা দেয়া শুরু হবে। এক সপ্তাহের ট্রায়াল শেষে ৮ই ফেব্রুয়ারি থেকে সারাদেশে টিকাদান শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। তবে বিভিন্ন জরিপে দেখা যাচ্ছে, টিকা দেয়ার ব্যাপারে বাংলাদেশের বিপুল সংখ্যক মানুষের মধ্যে এক ধরনের অনীহা কাজ করছে। এ প্রসঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেছেন, কাউকে জোর করে টিকা দেয়া হবে না। তিনি বলেন, আমাদের কাছে যে টিকা আছে সেটা অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি আবিষ্কার করেছে। এই টিকার মালিক অ্যাস্ট্রাজেনেকা। ভারতে শুধু উৎপাদন হচ্ছে। টিকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া সম্পর্কে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, প্রত্যেকটি ভ্যাকসিনেরই কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকে। এটারও আছে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, টিকা নিয়ে বিভ্রান্তি দূর করতে হলে দায়িত্বশীলদের আগে টিকা নিতে হবে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ভাইরোলজিস্ট অধ্যাপক নজরুল ইসলাম বলেছেন, হঠাৎ করে মানুষের মধ্যে কেন আগ্রহ কমে গেলো তা বুঝতে পারছি না। তিনি অবশ্য বলেন, দায়িত্বশীলরা আগে টিকা নিলে এই পরিস্থিতি পাল্টে যেতে পারে। করোনা ভাইরাসের কারণে মার্চ থেকে বন্ধ হওয়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ফেব্রুয়ারিতে চালু করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। দশম ও দ্বাদশ শ্রেণিতে নিয়মিত ক্লাস হবে। প্রথম থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত ক্লাস হবে সপ্তাহে একদিন। শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি জাতীয় সংসদে এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন।

ওদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। শনাক্ত হয়েছেন ৪৭৩ জন। শনাক্তের হার চার শতাংশেরও নিচে। বাংলাদেশে টেস্ট কম, হাসপাতালেও যেতে চান না অনেকে। এর ফলে সঠিক চিত্র অজানাই থেকে যায়।

please wait

No media source currently available

0:00 0:01:58 0:00
সরাসরি লিংক


XS
SM
MD
LG