অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

করোনায় কাবু উত্তরের জনপদ, রাজশাহী মেডিকেলে মৃত্যুর হানা প্রতিদিন


করোনায় কাবু উত্তরের জনপদ, রাজশাহী মেডিকেলে মৃত্যুর হানা প্রতিদিন

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রতিদিনই মৃত্যু হানা দিচ্ছে। ১৯৫৮ সনে প্রতিষ্ঠিত এই হাসপাতালটি এখন করোনা রোগী সামাল দিতে রীতিমত হিমশিম খাচ্ছে। এই হাসপাতালে বেড রয়েছে ৮৬২ টি। করোনা ডেডিকেটেড ২৩২ টি।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রতিদিনই মৃত্যু হানা দিচ্ছে। ১৯৫৮ সনে প্রতিষ্ঠিত এই হাসপাতালটি এখন করোনা রোগী সামাল দিতে রীতিমত হিমশিম খাচ্ছে। এই হাসপাতালে বেড রয়েছে ৮৬২ টি। করোনা ডেডিকেটেড ২৩২ টি।

উত্তরের জনপদ এখন করোনা আতঙ্কে অনেকটাই কাবু হয়ে পড়েছে। শুধু শহর নয়, গ্রামেও ছড়িয়ে পড়েছে। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনা ও করোনার উপসর্গ নিয়ে এ পর্যন্ত ১১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। বর্তমানে রোগী ভর্তি আছেন ২৫৭ জন। রোগীর চাপ সামাল দিতে নতুন ওয়ার্ড খোলা হচ্ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুর মিছিলে যোগ দিয়েছেন আরও আট জন।

রাজশাহী, নাটোর, চাঁপাই নবাবগঞ্জ, নওগাঁ থেকেই বেশি রোগী ভর্তি হচ্ছেন। টেস্ট কম থাকায় অনেকেই উপসর্গ নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। রাজশাহী বিভাগে গতকাল পর্যন্ত শনাক্তের হার ২৫ দশমিক ০৮ শতাংশ। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী বর্তমান পরিস্থিতিকে উদ্বেগজনক বলে বর্ণনা করেছেন।

ওদিকে সাতক্ষীরা পরিস্থিতি দ্রুতই নাগালের বাইরে চলে যাচ্ছে। গত একদিনে সংক্রমণ বেড়ে ৫৫ দশমিক ৮ শতাংশে পৌঁছেছে। এই সময় ১৮৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১০৩ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এই জেলায় এ পর্যন্ত ৪৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন ২৩১ জন। চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৪৬৫ জন।

স্বাস্থ্যদপ্তর আগেই সতর্ক করেছিল, জুন মাসটা স্বস্তিকর নাও হতে পারে। গত এক সপ্তাহের পরিস্থিতি ভয়ঙ্কর আলামতের ইঙ্গিত দিচ্ছে। সীমান্তবর্তী জেলাগুলোর পাশাপাশি অন্য জেলাগুলোতেও সংক্রমণ বাড়ছে। এক সময় ঢাকা ছিল করোনার হটস্পট। পরিসংখ্যান বলছে, ঢাকায় এখন সংক্রমণ পাঁচ শতাংশের একটু বেশি।

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই পরিস্থিতি হয়তো এখানেই স্থির থাকবেনা। সংক্রমণ যে গতিতে সারা দেশে ছড়াচ্ছে তাতে ঢাকা নিরাপদ থাকবে এমনটা ভাবার কোনো কারণ নেই। এর মধ্যে খবর এসেছে, খুলনা বিভাগ ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টের পরবর্তী হটস্পট হতে পারে। এ বিভাগের ছয়টি জেলার সাথে ভারতের ২৬৪ কিলোমিটার সীমান্ত রয়েছে। যদিও গত ২৬ শে এপ্রিল থেকে দু’দেশের সীমান্ত বন্ধ রয়েছে। অনেকেই সীমান্ত রক্ষীদের চোখ ফাঁকি দিয়ে দেশে ফিরছেন। এর ফলে দ্রুত সংক্রমণ বাড়ছে।

খুলনা, যশোরের হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসা ব্যবস্থা খুবই সীমিত। স্বাস্থ্য দপ্তর বলছে, এখন পর্যন্ত ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত ৪০ জনের খবর রয়েছে তাদের কাছে। এর মধ্যে বেশিরভাগই রাজশাহী ও খুলনা বিভাগের।

গত একদিনে মৃত্যু আর সংক্রমণ দুটোই বেড়েছে। এসময় মারা গেছেন ৪৪ জন। আক্রান্ত হয়েছেন দুই হাজার ৩২২ জন। ঢাকা থেকে মতিউর রহমান চৌধুরী

করোনায় কাবু উত্তরের জনপদ, রাজশাহী মেডিকেলে মৃত্যুর হানা প্রতিদিন
please wait

No media source currently available

0:00 0:02:49 0:00
সরাসরি লিংক


XS
SM
MD
LG