অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

চালু হয়েছে পশ্চিম ও উত্তরবঙ্গের কালচিনি ও রায়মাটাং চা বাগান


চালু হয়েছে পশ্চিম ও উত্তরবঙ্গের কালচিনি ও রায়মাটাং চা বাগান

বছর খানেক ধরে বন্ধ হয়ে পড়েছিল পশ্চিমবঙ্গের উত্তরবঙ্গের ডুয়ার্সের কালচিনি ও রায়মাটাং চা বাগান। কিছুতেই জট কাটছিল না। কিন্তু বছর ঘুরে ফের খুশির হাওয়া দুই চা বাগানে।

বছর খানেক ধরে বন্ধ হয়ে পড়েছিল পশ্চিমবঙ্গের উত্তরবঙ্গের ডুয়ার্সের কালচিনি ও রায়মাটাং চা বাগান। কিছুতেই জট কাটছিল না। কিন্তু বছর ঘুরে ফের খুশির হাওয়া দুই চা বাগানে। রাজ্যের শ্রম কমিশনারের দপ্তরে ত্রিপাক্ষিক বৈঠকে সব সমস্যা মিটে যাওয়ায় আজ রবিবার থেকেই আবার কাজে ফিরলেন শ্রমিকরা। পুজোর আগে ফের কাজ শুরু হওয়ায় স্বভাবতই স্বস্তির হাওয়া শ্রমিক মহল্লায়। আগামী ৩ নভেম্বর ফের দুই চা বাগান নিয়ে হবে ত্রিপাক্ষিক বৈঠক।

সমস্যা ছিল অজস্র। কালচিনি, রায়মাটাং – দুটি চা বাগান একই মালিকের অধীনে ছিল। শ্রমিকদের ঠিকমতো মজুরি না দেওয়া, মালিক-শ্রমিক বিরোধ, অসন্তোষের মধ্যে গত বছরের অক্টোবরে বন্ধ হয়ে গিয়েছিল দুটি বাগান। কর্মহীন হয়ে পড়েন ৩ হাজারেরও বেশি চা শ্রমিক।

জট কাটাতে একাধিকবার মালিক-শ্রমিক পক্ষকে আলোচনার টেবিলে হাজির করানো হয়েছে শ্রম দপ্তরের তরফে। কিন্তু সমাধানসূত্র মিলছিল না।ইতিমধ্যেই উত্তরবঙ্গের শিলিগুড়িতে ত্রিপাক্ষিক বৈঠকে একাধিক শর্ত মেনে বাগান খুলতে রাজি হয় মালিকপক্ষ। বলা হয়েছে, এ পর্যন্ত শ্রমিকদের সমস্ত বকেয়া মিটিয়ে দিতে হবে অক্টোবরের ৩ তারিখের মধ্যে। এছাড়া শ্রমিকদের পুজোর বোনাসের টাকাও দিয়ে দিতে হবে দ্রুতই। এছাড়া বাগান বন্ধ থাকাকালীন যাঁরা অবসর নিয়েছেন, প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটি-সহ দিয়ে দিতে হবে তাঁদের সমস্ত প্রাপ্যও।

please wait

No media source currently available

0:00 0:01:33 0:00


XS
SM
MD
LG