অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

তিন কোটি ডোজ করোনার টিকা বিনামূল্যে দেবে সরকার


তিন কোটি ডোজ করোনার টিকা বিনামূল্যে দেবে সরকার

বিনামূল্যে করোনার টিকা দেবে সরকার। মন্ত্রিসভার সোমবারের বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হয়েছে। প্রথম দফায় যুক্তরাজ্যের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের তৈরি টিকার তিন কোটি ডোজ কেনা হবে।

বিনামূল্যে করোনার টিকা দেবে সরকার। মন্ত্রিসভার সোমবারের বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হয়েছে। প্রথম দফায় যুক্তরাজ্যের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের তৈরি টিকার তিন কোটি ডোজ কেনা হবে।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, টিকা কেনার জন্য ৭৩৫ কোটি ৭৭ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা উদ্ভাবিত কোভিড-১৯ এর তিন কোটি ডোজ টিকা কেনার সিদ্ধান্ত আগেই হয়েছে। এই টিকা আসবে ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউট থেকে। বাংলাদেশ সরকার, বেক্সিমকো ও সিরাম ইনস্টিটিউটের মধ্যে এ নিয়ে একটি ত্রিপক্ষীয় চুক্তি সই হয়েছে। কারা এই টিকা আগে পাবে, জানতে চাইলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, এটা ঠিক হবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রটোকল অনুযায়ী।

অক্সফোর্ডের এই টিকা ২ থেকে ৮ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করা যায়। বাংলাদেশের তাপমাত্রায় এটা রাখা সম্ভব। প্রথম ডোজের ২৮ দিন পর দ্বিতীয় ডোজ প্রয়োগ করা হবে। করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে মাস্ক পরার বিষয়ে সরকার আরও কঠোর ব্যবস্থা নিচ্ছে। মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, মাস্ক না পরলে সর্বোচ্চ জরিমানা করা হবে। পরিস্থিতির উন্নতি না হলে জেলের বিধানও চালু করা হবে।

ওদিকে বাংলাদেশে করোনা সংক্রমণ বেড়েই চলেছে। গত এক দিনে এক লাফে সংক্রমিত হয়েছেন দুই হাজার ৫৩৯ জন। গত ১২ সপ্তাহের মধ্যে এটাই সর্বোচ্চ। গত মাসের তুলনায় এ মাসে ৩২ দশমিক পাঁচ ভাগ বেশি সংক্রমণ ধরা পড়েছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, শীতের কারণে শুধু নয় মানুষ বেপরোয়া হওয়ায় প্রকোপ বেড়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ৩৫ জন। স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, মানুষ সচেতন না হওয়ায় গত কয়েকদিনে করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যু হার বেড়েছে। তিনি বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে। না হলে আক্রান্ত বেড়ে গেলে হাসপাতালে ঠাই হবে না। দুনিয়ার কোনো দেশের পক্ষেই লাখ লাখ মানুষকে হাসপাতালে রাখার সক্ষমতা নেই। তাই 'টু মাচ কনফিডেন্ট' হবেন না। হলে কিন্তু বিপদ হবে। মন্ত্রী বলেন, মানুষ এতোটাই বেপরোয়া যে, কয়েকদিন ধরে লাখ লাখ মানুষ সমুদ্রের পাড়ে ঘোরাফেরা করছেন। আর সেখানে অনেকেই সংক্রমিত হচ্ছেন। বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। ঢাকা থেকে মতিউর রহমান চৌধুরী

please wait

No media source currently available

0:00 0:02:01 0:00
সরাসরি লিংক



XS
SM
MD
LG