অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

নভোচারী ড. টেঁস ইলেইন কেসওয়েল: মহাকাশ নিয়ে সফল গবেষণা চালানোর সক্ষমতা বাংলাদেশের রয়েছে


Astronaut Dr. Tess Caswell

যুক্তরাষ্ট্রের একজন নভোচারী বলেছেন মহাকাশ নিয়ে সফল গবেষণা চালানোর সক্ষমতা বাংলাদেশের রয়েছে এবং এটা শুরু হলে এদেশের বিজ্ঞানীরা এ ক্ষেত্রে বিশেষ অবদান রাখাতে সমর্থ হবেন।

ঢাকা থেকে রিপোর্ট পাঠিয়েছেন জহুরুল আলম।

please wait

No media source currently available

0:00 0:02:57 0:00

চার দিনব্যাপী বাংলাদেশ সফর শেষের প্রাক্কালে নভোচারী ড. টেঁস ইলেইন কেসওয়েল ভয়েস অফ অ্যামেরিকার সাথে এক সাক্ষাৎকারে এমন মন্তব্য করে আশা প্রকাশ করেছেন যে বাংলাদেশের এ ধরনের উদ্যোগে মহাকাশ নিয়ে গবেষণা পরিচালনাকারী দেশ এবং প্রতিষ্ঠানগুলো সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেবে।

ড. কেসওয়েল, যিনি প্রকৃত অর্থে নভোযানে করে মহাকাশে না গেলেও যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ কেন্দ্র নাসার একটি কৃত্রিম নভোযানে হিউম্যান এক্সপ্লোরেশন রিসার্চ এনালগ ১১ প্রকল্পে অপর তিনজন নভোচারীর সাথে একমাস অবস্থান করেছেন।

ওই কৃত্রিম নভোযানে প্রকৃত মহাকাশ ভ্রমণের সময় যে সকল অভিজ্ঞতার সম্মুখীন একজন নভোচারীকে হতে হয় তার সকল ব্যবস্থা এবং পরিবেশ রয়েছে বলে তিনি জানান।

কৃত্রিম নভোযানে থাকার অভিজ্ঞতা সম্পর্কে জানতে চাইলেড. কেসওয়েল বলেন সংক্ষেপে বলতে গেলে এটা ছিল আমার জন্য একটা চমৎকার অভিজ্ঞতা এবং সেখানে অবস্থানের ফলে আমার জ্ঞানের পরিধিকে আরও বিস্তৃত হয়েছে।মাহাকাশ স্টেশনে যাওয়ার সুযোগ দেয়া হলে তা তিনি গ্রহণ করবেন কিনা এমন এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন এ ধরনের প্রস্তাব তিনি সানন্দে গ্রহণ করবেন। তিনি বলেন এটা হবে তাঁর জীবনেরে একটি অন্যতম চ্যালেঞ্জ।

ভিন গ্রহে মানুষের বসবাসের সম্পর্কে তিনি কতটা আশাবাদী এমন এক প্রশ্নের জবাবে যুক্তরাষ্ট্রের এ নভোচারী বলেন আমাদের সৌরমণ্ডলে যে সকল গ্রহ এবং চাঁদে রয়েছে তাতে মানুষ একসময় বসবাস করতে সক্ষম হবে বলে আমি খুবই আশাবাদী। তিনি বলেন গবেষকরা এ নিয়ে গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন, ভিন গ্রহে নভোযান এবং রোবট পাঠিয়ে বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে । ড. কেসওয়েল বলেন এটা একটা সময় সাপেক্ষ ব্যাপার যা হয়ত আমাদের জীবদ্দশায় সম্ভব হবেনা কিন্তু আমি নিশ্চিত যে একদিন না একদিন গবেষকরা এমন গ্রহ খুঁজে পাবেন যেখানে মানুষ স্বাচ্ছন্দ্যের সাথে বসবাস করতে পারবেন। সৌর মণ্ডলের বাইরে মহাকাশে যে সকল গ্রহ নক্ষত্র রয়েছে তার কোথাও না কোথাও প্রাণের অস্তিত্ব থাকতে পারে বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন সে সকল যায়গায় কবে নাগাদ মানুষ পৌছাতে পারবে তা বলা দুষ্কর।

বিশ্বের অনেক দেশের মানুষের মত বাংলাদেশের বেশ কিছু মানুষের ধারনাভিন গ্রহের মানুষ অথবা প্রাণীরা পৃথিবীতে যাতায়াত করে থাকে এমনকি অবস্থানও করছে । মানুষের এ ধরনের বিশ্বাসের কোন বৈজ্ঞানিক ভিত্তি রয়েছে কিনা এমন এক প্রশ্নের জবাবে ড. কেসওয়েল, বলেন তার জানামতে এ যাবত ভিন গ্রহের কোন মানুষ কিংবা প্রাণী পৃথিবীতে আসে নাই।

XS
SM
MD
LG